বৃহঃ. ডিসে ১২, ২০১৯

জগন্নাথপুর সৈয়দ পুরে প্রবাসীর ভুমি দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে রাজু গংরা

১ min read

নতুন নিউজ ডেস্ক :: তথাকথিত ছাত্রলীগ নেতা সন্ত্রাসী রাজু ও তার সহযোগিদের অব্যাহত হুমকিতে একটি প্রবাসী পরিবার দেশে ফিরতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানার সৈয়দপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের দিলু মিয়ার পুত্র শাহেদ আহমদ।

 

 

তার চাচাতো ভাই একই গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী হরুপ মিয়ার ছেলে খালিছ মিয়া, মরহুম সুনু মিয়ার পুত্র যুক্তরাজ্য প্রবাসী মো. সাজিদুর রহমান ও তার ভাই-বোনদের ভূমি দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে রাজু ও তার পরিবারের সদস্যরা। তারা যখন তখন সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে খুনোখুনির মতো ঘটনা ঘটানোর পাঁয়তারায় লিপ্ত বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

 

বুধবার দুপুরে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শাহেদ অাহমদ এসব অভিযোগ করেন।

 

 

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমার চাচা মরহুম সুনু মিয়া তিন ছেলে ও ৭ মেয়ে রেখে মারা যান। তারা যুক্তরাজ্য প্রবাসী। চাচার মৃত্যুর পর আমাদের নিকটাত্মীয় মৃত ওয়ারিছ আলীর পুত্র আলী আহমদ, নূর আহমদ, দিল আহমদ, আলী আহমদের পুত্র রাজু, মৃত রহমত উল্লার পুত্র গুলজার এবং দিল আহমদের পুত্র ছানাওর মিয়া তার সম্পত্তি আত্মসাতের পাঁয়তারা শুরু করে। ভূমিখেকো এসব সন্ত্রাসী বাড়ির পশ্চিমাংশের ভূমি একাকমলক্ষী মৌজার ২৩২ নম্বর খতিয়ানে চাচার নামে রেকর্ডীয় বর্তমান দাগ নং ৩৪৪ এবং সাবেক দাগ নং ৩৫২- এ কয়েক শতক ভূমি দখল করে নিয়েছে।

 

তিনি বলেন, ইদানিং তারা সাজিদুর রহমানের বসত ঘরের পশ্চিমে বেশ কয়েক শতক ভূমি মাটি ভরাট করে দালানকোটা নির্মাণের চেষ্টা করলে আমরা প্রতিবাদ করি। তারা গালিগালাজ করে এবং হত্যার হুমকি দেয়। তাদের হুমকি আর অস্ত্রের ঝনঝনানিতে আমরা চরম নিরাপত্তাহীণতায় ভুগছি। চাচাতো ভাই বোনেরা প্রবাসে থাকায় তাদের সম্পত্তি আমি এবং আমার ফুফাত ভাই সৈয়দ মিজাত মিয়া দেখাশুনা করি। এ কারণে সন্ত্রাসীরা আমাদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি প্রদান করছে। তারা দাঙ্গাবাজ ও লাটিয়াল। বিশেষ করে রাজু নিজেকে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি পরিচয় দিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। সে এবং তার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে ভূমি দখল, নারী নির্যাতন, মাদক সেবন ও বিক্রির অভিযোগও রয়েছে। তার ভয়ে আমার প্রবাসী ভাই-বোনেরা দেশে আসতে পারছেন না। সে প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে ঘোরাফেরা করে। রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে সে এলাকায় নিজস্ব সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তুলেছে। পুলিশ সব জানলেও অজ্ঞাত কারণে তাকে গ্রেফতারের করছেনা। তার একজন গডফাদারও রয়েছে। তথাকথিত এই গডফাদারের শেল্টারেই সে যাবতীয় অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। রাজু ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার না করলে যেকোন সময় খুণসহ বড় ধরনের ঘটনা ঘটাতে পারে।

 

তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা ও প্রবাসী চাচাতো ভাইবোনদের নিজের মাতৃভূমিতে ফিরতে সহযোগিতার জন্য শাহেদ আহমদ অবিলম্বে রাজু ও তার বাহিনীকে গ্রেফতারের জোরালো দাবি জানিয়েছেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন-সৈয়দ ছফেদ মিয়া, মির্জা শাফুল, মো. মাজেদ মিয়া, সৈয়দ আনিসুর রহমান।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.