বৃহঃ. সেপ্টে ২৪, ২০২০

মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় দাখিল পরীক্ষার্থী জুমা আক্তার গুরুতর আহত

১ min read

এম রেজা টুনু সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার দীনেরটুক দারুল কোরআন আলিম মাদ্রাসার মেধাবী ছাত্রী দাখিল পরীক্ষার্থী অসহায় মোছাঃ জুমা আক্তার পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে কলাউড়া ফাজিল(ডিগ্রী) মাদ্রাসা কেন্দ্রে যাওয়ার সময় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছে। আহত হয়ে জ্ঞান হারালে পরীক্ষা কেন্দ্রের মেডিকেল টিম প্রাথমিক চিকিৎসা করে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দিলে ছাত্রীর অভিভাভক সিলেট রওয়ানা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। আহত দাখিল পরীক্ষার্থী জুমা আক্তার দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের পূর্ব ঘিলাতলী গ্রামের আকবর আলীর মেয়ে। তার রোলনং ২৭০১৮৩ রেজিঃনং-১৭১৮৬০৭২১২ ।
আজ সোমবার সকালে দাখিল পরীক্ষা দেয়ার জন্য জুমা আক্তার মোটর সাইকেলে কলাউড়া ফাজিল(ডিগ্রী)মাদ্রাসা কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য রওনা হয়। কলাউড়া মাদ্রাসার পাশে মোটর সাইকেলটি বালু নদী থেকে পাড়ে উঠার সময় র্দূঘটনায় পড়ে ঝুমা আক্তার নামে এই পরীক্ষার্থী গুরুতর আহত হন তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যায়। কলাউড়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে নেয়া হলে কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত মেডিকেল টিম আশঙ্কাজনক অবস্থা দেখে তাকে তাৎক্ষনিক ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে পাঠানো হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার অবস্থার অবনতি দেখে দুপুরে তাকে দ্রæত সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো নির্দেশ দেন। জুমাকে নিয়ে তার স্বজনরা এখন সিলেটের পথে রয়েছেন বলে জানাযায়।
এ ব্যাপারে মেয়েটির সাথে থাকা মামা সিরাজুল ইসলাম জানান, সকালে পরীক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্যে মোটর সাইকেল যোগে কলাউড়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে যাওয়ার পথে বালু নদী থেকে মোটর সাইকেল নিয়ে তীরে উঠার সময় হঠাৎ মোটর সাইকেল একসিডেন্টে জুমা আক্তার গুরুতর আহত হন এবং জ্ঞান হারিয়ে ফেলে সে এখনো অজ্ঞান অবস্থায় আছে সিলেট যাওয়ার পথে আছি । জুমা পরিবার খুবই দরিদ্র যেখানে পরিবারে নুন আনতে পান্তা ফুরায়, সেখানে এত ব্যয় বহুল চিকিৎসা কিভাবে করানো হবে, এ চিন্তায় পরিবারের সদস্যরা মানসিকভাবে বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছেন।
এ ব্যাপারে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা জাকির হোসেন জানান, মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত জুমা আক্তার তার স্বজন কাউকে চিনতে পারতেছেনা পরিবারটি খুবই অসহায়। বিষয় মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে অবগত করা হয়েছে।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.