মঙ্গল. সেপ্টে ২২, ২০২০

কোয়ারেন্টিনে না থাকায় মানিকগঞ্জে আরও ২ প্রবাসীর অর্থদণ্ড

নতুন আলো অনলাইন ডেস্ক রিপোর্ট:: কোয়ারেন্টিনে না থাকার দায়ে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া ও ঘিওরে আরও দুই বিদেশ ফেরত ব্যক্তিকে অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে। এর আগে আরও একজনকে জরিমানা করা হয়। উপজেলার দরগ্রাম ইউনিয়নের মধ্য রৌহা গ্রামের ফকির আলীর পুত্র ইরাক প্রবাসী মঙ্গুল হোসেনকে ১০ হাজার টাকা, এবং ঘিওর উপজেলার কুসুন্ডা এলাকায় অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী পান্নু মিয়াকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ দণ্ড দেন।

এর আগে রোববার সাটুরিয়া ইউনিয়নের তারা মিয়ার ছেলে সৌদি আরব প্রবাসী লাল মিয়াকে (৪০) জরিমানা করা হয়েছিলো। হোম কোয়ারেন্টিন অমান্য করে এলাকায়  ঘোরাফেরা করায় তাদের এই দণ্ড দেয়া হয়।
সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল আলম বলেন, সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সাটুরিয়ায় ৬১ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। দেশের বাইরে থেকে আসার পর আমরা ১৪ দিন নিজ বাড়ির বাহিরে না যাওয়ার জন্য বলে আসছি। প্রতিদিন টিম নিয়ে চায়ের দোকান ও প্রবাসীদের বাড়ি গিয়ে করোনা ভাইরাস নিয়ে আলোচনা করছি।

এর পরও কিছু প্রবাসীর প্রকাশ্যে জনসম্মুখে ঘুরে বেড়ানোর খবর পেলে আমরা ব্যাবস্থা নিচ্ছি। এর পরও সরকারি আইন উপেক্ষা করলে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে।

ঘিওর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার জানান, করোনা ভাইরাস নিয়ে আমরা প্রতিনিয়ত উপজেলার সর্বত্রই মানুষজনকে সচেতনাতামূলক পরামর্শ দিয়ে আসছি। এরই মধ্যে মঙ্গলবার দুপুরে খবর পেলাম উপজেলা কুসুন্ডা এলাকায় একজন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিন অমান্য করে বাইরে ঘোরাফেরা করছেন। পরে ঘটনার সত্যতা হাতে নাতে পাওয়ায় তাকে ১৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে এবং ১৪ দিন বাড়ি কিংবা ঘরের বাইরে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।
এদিকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত সর্বমোট ৩২৭ জন প্রবাসী মানিকগঞ্জে ফিরেছেন। তবে এদের অনেকেই হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার আইন মানছেন না। ফলে বিদেশ থেকে ফিরেই অনেকে প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করায় শঙ্কায় রয়েছে এলাকাবাসী।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.