বুধ. সেপ্টে ২৩, ২০২০

জঙ্গিবাদের আসল রহস্য রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করা : মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জঙ্গিবাদের আসল রহস্য রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করা। তিনি বলেন, সরকার জঙ্গিবাদকে রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার করে বিএনপিকে সরকার ঘায়েল করার চেষ্ট করছে। ফখরুল বলেন, জঙ্গিবাদ নিয়ে যে রহস্যময় খেলা খেলছে তার আসল রহস্য হচ্ছে দেশে ঘরোয়া জঙ্গিবাদের কথা বলে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করে তাদেরকে রাজনীতি থেকে সরিয়ে দেয়া। প্রত্যেকবারই এভাবে জঙ্গিবাদের ধোঁয়া তোলে। তারপরে বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের ধরে নিয়ে যায়।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়া পল্টনে রাজধানীর ভাসানি ভবন মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর বিএনপি আয়োজিত ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিএনপির র‌্যালী কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষে প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন। এসময় ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস স্বাধীনতা দিবসে বিএনপির কর্মসূচি ঘোষণা করে বলেন, মহানগরের প্রতিটি ওয়ার্ড এবং থানা থেকে নেতারা দুপুর ২ টায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্র্রীয় কার্যালয়ে উপস্থিত হবে। কার্যালয়ের সামনে থেকে প্রেস ক্লাবের অভিমুখে শান্তিপূর্ণ মিছিল করা হবে বলে জানান তিনি। তবে মিছিলের পথ পরবর্তীতে পরিবর্তনও হতে পারে বলেও জানান তিনি।
ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল আউয়াল মিন্টু, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপির সহ সাংগঠনিকর সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতা হাজী শফিকুল ইসলাম রাসেল প্রমুখ।
জঙ্গিবাদ নিয়ে সরকারের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আপনারা আগুন নিয়ে খেলছেন। আজকে তাকিয়ে দেখেন সিরিয়ার দিকে লক্ষ লক্ষ মানুষকে প্রাণ দিতে হয়েছে। আমি অত্যন্ত ভিত এবং উদ্বিগ্ন। কোন দিকে সরকার আমাদের নিয়ে যাচ্ছে। আমি স্পষ্টভাবে জানতে চাই আপনাদের আসল লক্ষটা কি? যদি জঙ্গিীবাদ নির্মূল করতে চান তাহলে অবশ্যই সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে সাথে নিয়ে সত্যিকার অর্থেই প্রকৃত তথ্য উৎঘাটন করেন।
জঙ্গিবাদ নিয়ে র‌্যাব এবং পুলিশের আইজির কথার কোনো মিল নেই জানিয়ে তিনি বলেন, আশকোনায় যাকে জঙ্গি বলে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে, সেই হত্যার তথ্যের সাথে পুলিশ ও র‌্যাবের বর্ণনার সাথে কোনো মিল।
মির্জা ফখরুল বলেন, জঙ্গি বলে যাদেরকে ধরেন তাদেরকেই ক্রসফায়ার করে মেরে ফেলেন। তাদের ধরেন। তদন্ত করেন। ঘটনার প্রকৃত তথ্য বের হয়ে আসুক। কারা মদদ দিচ্ছে, কারা করছে। আমরা চাই একই সাথে পুরো জাতি চায় জঙ্গীবাদকে নির্মূল করা হোক। কিন্তু আপনারা সেটা করছেন না আর করবেনও না।
তিনি বলেন, কয়েকদিন পর পর বলে, জঙ্গিবাদ নির্মূল হয়ে গেছে। তাহলে জঙ্গিবাদ বাড়ছে কেন? তাহলে এই ঘটনা ঘটছে কেন?
ভারতের সাথে বাংলাদেশের চুক্তি নিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ভারতের সাথে তিস্তার পানির চুক্তি যে হবে না এটা পানি মন্ত্রীর কথায় স্পষ্ট হয়েছে। তবে কোন চুক্তি হবে। যে চুক্তি আমাদের স্বাধীনতা বিরোধী, অর্থনীতি ধ্বংস হবে, নিজেদের দাসত্বে পরিণত করবে এমন চুক্তি। দেশে স্বার্থ বিরোধী কোনো চুক্তি এদেশের মানুষ মেনে নিবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.