মঙ্গল. সেপ্টে ২২, ২০২০

জগন্নাথপুরে ইউপি সদস্যকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও বানোয়াট স্ট্যার্ডাস দেওয়ায় অভিযোগ দায়ের

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের বর্তমান ইউপি সদস্য বজলু মিয়াকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও বানোয়াট স্ট্যার্ডাসকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য গতকাল শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য করোনা ভাইরাস উপলক্ষে সরকারের বিশেষ বরাদ্ধ দেয়া হয়। গত ২৮ মার্চ বজলু মিয়া তার দেয়া বরাদ্ধের চাল লোকজনের মধ্যে বিতরণ করেন।

 

 

কিন্তু ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাহমদ মিয়ার বরাদ্ধকৃত ত্রান সামগ্রী পরে নিবেন বলে বজলু মিয়ার বাড়ীতে রেখে যান। ৩০শে মার্চ বজলু মিয়ার বজলু মিয়ার অনুপস্থিতে ইউপি সদস্য মাহমদ মিয়া বরাদ্ধ ত্রান সামগ্রী এলাকায় না নিয়ে গ্রাম পুলিশের মাধ্যমে বজলু মিয়ার বাড়ীতে বল্টন করেন।

 

 

 

 

এ নিয়ে ৩ এপ্রিল উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত ফারুক মিয়ার ছেলে মো. তাহিনুর ইসলাম (২৫) ও মো. তাহিদ উল্লাহ ছেলে মিজান আহমদ (৩০) তাদের স্ব স্ব ফেসবুক আইডি থেকে বজলু মিয়াকে জড়িয়ে মিথ্যা ও মানহানীকর পোষ্ট প্রদান করে।

 

 

 

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য বজলু মিয়া জানান, নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত ফারুক মিয়ার ছেলে মো. তাহিনুর ইসলাম (২৫) ও মো. তাহিদ উল্লাহ ছেলে মিজান আহমদ (৩০) তাদের স্ব স্ব ফেসবুক আইডি থেকে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও মানহানীকর পোষ্ট প্রদান করে।

 

 

 

এতে আমার ও পরিবারের মানসম্মান ক্ষুন্ন হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে আমার ওয়ার্ডের বরাদ্ধকৃত ত্রান সামগ্রী সরকারের যথাযথ নিয়ম মেনে বন্টন করেছি। যা সরকারের যে কোন সংস্থার মাধ্যমে তদন্ত করলে সতত্যা পাওয়া যাবে। তার পরও একটি মহল উদ্দেশ্যে প্রনোদিত ভাবে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করায় তাদের বিরুদ্ধে আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে আকুল আবেদন জানাই।

 

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.