এপ্রিল ১৬, ২০২১

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান চপল ও নির্বাহী অফিসার রুমা। 

এম রেজা টুনু সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে সরকারের র্দূযোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রানমন্ত্রনালয়ের আওতায় পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মোট একহাজার অস্বচ্ছল মানুষের মধ্যে ১১৭ জন ইমাম মোয়াজ্জিন,১৩৪টি আদিবাসী সম্প্রদায় পরিবার,১৫০টি বাউল শিল্পীগোষ্ঠি পরিবার ছাড়াও অন্যান্য আরো ৬ শতাধিক পরিবারের মাঝে ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

শনিবার দুপুর আড়াইটায় সদর উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে পরিষদের সামনে অস্বচ্ছল পরিবারের সদস্যদের হাতে ঐ সমস্ত ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসমিন নাহার রুমা।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক গ্রন্থ ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ ইকবাল মাহমুদ বাবলু,সুনামগঞ্জ পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও জেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য নুরুল ইসলাম বজলু,সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এড. মোঃ আবুল হোসেন,পিআইও মোঃ মানিক মিয়া প্রমুখ।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল বলেছেন,এই মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশের মানুষকে যার যার ঘরে নিরাপদে থাকার আহবান জানিয়ে ছিলেন। মানুষজন ঘরে কর্মহীন হয়ে থাকলে ও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা জেলা পরিষদ,জেলা প্রশাসন,উপজেলা প্রশাসন,জেলা যুবলীগসহ সহযোগি সংগঠনের প্রতিটি নেতাকর্মীরা অসহায় ,মানুষজনের ঘরে ঘরে সাধ্যমতো খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি বলেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আমরা সবাই এই পবিত্র রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষা করে সবাইকে অযথা বাহিরে কোন প্রয়োজন ছাড়া বের না হয়ে ঘরে বসে নামাজ রোজা রাখার আহবান জানান। তিনি বলেন আমরা একদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই মহামারী করোনা ভাইরাসকে পরাজিত করে বাংলার মানুষ জয়লাভ করবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসমিন নাহার রুমা বলেছেন,এই করোনা মহামারীতে সুনামগঞ্জের বিপর্যস্থ অসহায় ও অস্বচ্ছল মানুষজনের জন্য খাদ্য নিারপত্তা নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিকে হাওরে বোরো ধান কাটার ধুম শুরু হয়েছে এবং আগামী কয়েকদিনের মধ্যে হাওরের সব ধান কাটাও সম্পন্ন হবে আশাবাদ জানিয়ে তিনি আরো বলেন শ্রমিক সংকট কিছুটা থাকলে ও সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ(স্যার)সহ প্রশাসনের সকল স্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ থেকে শুরু করে জেলা যুবলীগ,কৃষকলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে হাওরে হাওরে গিয়ে কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিচ্ছেন বলে তিনি জানান। ##

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.