এপ্রিল ১৬, ২০২১

জগন্নাথপুরে দাসনোয়াগাঁওয়ে পুলিশের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল এক কিশোরী।

এম রেজা টুনু সুনামগন্জ থেকে:জগন্নাথপুর উপজেলার চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নের দাসনোয়াগাঁও আলগা বাড়ি গ্রামে পুলিশের উপস্থিতিতে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল ঐ গ্রামের সুফি মিয়ার কিশোরী কন্যা। বাল্য বিবাহের খবর পেয়ে আজ শুক্রবার (৫ জুন) বিকেল আড়াইটায় জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নির্দেশে এস আই মনির উদ্দিন ও এ এস আই শাহীন চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশদল দাসনোয়াগাঁও গ্রামে পৌছে চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রনধীর দাস রান্টুর সহযোগিতায় বাল্য বিবাহ থেকে কিশোরীকে রক্ষা করেন। এসময় এলাকার গন্যমান্য সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।
এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, দাসনোয়াগাঁও আলগা বাড়ি গ্রামের সুফি মিয়ার কিশোরী কন্যার সাথে পার্শ্ববর্তী গ্রাম দিরাই উপজেলার জগদল ইউনিয়নের কদমতলা গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে শরিফ মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এরই সূত্রধরে বিয়ের উপযুক্ত বয়স না হলেও আজ শুক্রবার বিবাহের দিনক্ষন ঠিক করা হয়। কিন্তু পাত্রীর বিয়ের বয়স না হওয়ায় দাসনোয়াগাঁও ও কদমতলা গ্রামের লোকজনদের মধ্যে বিয়েকে নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলে বিষয়টি প্রশাসন অবগত হয়। পরে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ দাসনোয়াগাঁও গ্রামে পৌছায় খবর পেয়ে পাত্রী পক্ষ তাদের বিয়ের আয়োজন বন্ধ করে মেয়ের পিতা সুফি মিয়া সহ বিয়ে অংশ গ্রহন করা আত্মীয় স্বজনরা পালিয়ে যায়। জগন্নাথপুর থানার এস আই মনির উদ্দিন জানান, দাসনোয়াগাঁও গ্রামে বাল্য বিবাহ হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা সেখানে যাই। সুফি মিয়ার বাড়িতে পৌছার পূর্বেই তাদের সব আয়োজন বন্ধ করে পালিয়ে যায়। মেয়ের উপযুক্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিবাহ দেবেনা বলে মেয়ের মা স্বপ্না বেগম আমাদের কাছে মুছলেকা প্রদান করেন।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.