সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

প্রধানমন্ত্রী কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জে জেলা যুবলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।

এম রেজা টুনু সুনামগঞ্জ প্রতনিধি
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য উত্তরসূরী আওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের উদ্যোগে শহরের মল্লিকপুরস্থ উপজেলা পরিষদের কার্যালয়ে সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপলের সভাপতিত্বে ও পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও জেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য নুরুল ইসলাম বজলুর সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস,শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সীতেশ তালুকদার মঞ্জু,তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অমল কান্তি কর,জেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য সবজু কান্তি দাস,সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানা কেয়া,ভাইস চেয়ারম্যান এড. মোঃ আবুল হোসেন,জামালগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোঃ পারভেজ আমহদ,সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এহসান আহমদ উজ্জল,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দিপংঙ্কর কান্তি দে.ছাত্রলীগ নেতা প্রমিয় মিত্র ও সাফাউজ জামান প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল বলেছেন,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ। ২০০৬সালের আজকের এইদিনে মইনুদ্দিন ফখরুদ্দিন কর্তৃক সেনা সমর্থিত তত্বাবধায়ক সরকারের আমলে আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মাইনাস করার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে গ্রেফতার করেছিল। দীর্ঘ ১১ মাস কারাবন্দী থাকার পর ২০০৭ সালের আজকের দিনে তিনি বাংলার জনগনের আন্দোলনের মুখে তৎকালীন সরকার তাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিল। এই সরকার নেত্রীকে অন্যায়ভাবে কারাগারে আটকে রেখে ভেবেছিল দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রাকে একেবারেই ধবংস করে দিতে। কিন্তু বাংলার জনগন সেনা সমর্থিত তত্বাবধায়ক তৎকালীন সরকারের সকল স্বপ্নঁ ভেঙ্গে চুরমার করে দিয়েছিল। ২০০৯ সালে বাংলার জনগনের অকুণ্ঠ সমর্থন ও ভালবাসা নিয়ে ব্যালটের মাধ্যমে রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্টিত হয়ে ২০২০ সালে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার দেশকে বিশ্বে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছেন। দেশে এখন আর কোন মংঙ্গা নেই,কোন র্দূভিক্ষ নেই। সাধারন মানুষের দৈনন্দিন আয় রোজগারের ফলে মাথাপিছু আয় রেড়েছে। দেশে গণতান্ত্রিক ধারা প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় মানুষে মানুষে কোন বিভেদ বৈষম্য নেই। তিনি বলেন,আজ বাঙ্গালী জাতির জন্য ঐতিহাসিক দিন এই দিনটি জাতি সব সময় পালন করে যাবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। আমরা বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারন সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের নির্দেশে সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের নেতৃবৃন্দরা প্রধানমন্ত্রীর কারামুক্তির আজকের এই ঔতিহাসিক দিনটি পালন করা হচ্ছে।
পরে নেতৃবৃন্দরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ ও জাতির র্দীঘায়ূ ও মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রকৌপ থেকে মানুষকে রক্ষা করতে দোয়া করা হয়।

 

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.