এপ্রিল ১৬, ২০২১

শফিউল বারী বাবু’র প্রথম জানাজা সম্পন্ন।

১ min read

প্রথম জানাজা শেষে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর মরদেহ নিজ জেলা লক্ষীপুরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) সকাল সোয়া ১০টায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এই জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজার পর শফিউল বারী বাবুর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করে বিএনপি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ নেতৃবৃন্দ তার কফিনে পুস্পমাল্য অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর আগে তার কফিন বিএনপির পতাকা দিয়ে ঢেকে দেন বিএনপি মহাসচিব। জানাজার আগে শফিউল বারী বাবুর স্মৃতিচারণ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, শফিউল বারী বাবু শুধু স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ছিলেন না, তিনি ছিলেন বিএনপির প্রাণ। তাকে হারিয়ে দলের যে অপূরণীয় ক্ষতি হল এটি পূরণ হবার নয়। সারাদেশে অসংখ্য নেতাকর্মী তার হাতে তৈরি হয়েছে। বাবুকে হারিয়ে আমরা আমাদের একটি অমূল্য সম্পদকে হারালাম।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামে তার ভূমিকা ছিল সামনের কাতারে। তিনি এমন এক সময়ে আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন, যখন একদিকে মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সারা বিশ্বে মানুষের জীবন স্থবির হয়ে পড়েছে, অপরদিকে আমাদের দেশে ফ্যাসিবাদী শাসনের যাঁতাকলে নিষ্পেষিত হচ্ছে দেশের সাধারণ মানুষ।

জানাজায় আরও অংশগ্রহণ করেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান, এজেডএম জাহিদ হোসেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, কৃষক দলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, বিএনপির তথ্যবিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সহ-জলবায়ুবিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, নির্বাহী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন ভূইয়া শিশির, কৃষকদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাইনুল ইসলাম, তাঁতী দলের যুগ্ম-আহ্বয়ক ড.কাজী মনিরুজ্জামান মনির প্রমুখ।

এর আগে মঙ্গলবার ভোর ৪টায় রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বিএনপির তরুণ প্রজন্মের নেতা শফিউল বারী বাবু। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫১ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে লড়ছিলেন। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

এদিকে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর অকাল মৃত্যুতে দেশব্যাপী জেলা, মহানগর এবং এর অধীনস্থ সকল থানা, উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের কার্যালয়ে আজ দিনব্যাপী খতমে কোরআন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

এছাড়া রাজধানীর ইস্কাটনস্থ নিজ বাসভবনে আজ দিনব্যাপী খতমে কোরআন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

মরহুমের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে আজ বাদ আসর তার নিজ গ্রাম লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে অনুষ্ঠিত হওয়ার পর পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

শফিউল বারী বাবু জাতীয়বাদী ছাত্র দলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মার্কেটিং বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভুইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, জাসাস সভাপতি ড. মামুন আহমেদ, কৃষক দলের সভাপতি শামসুজ্জামান দুদু, মৎস্যজীবী দলের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম মাহতাব।

এছাড়া বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শরীক জামায়াতে ইসলামী, খেলাফত মজলিস, ইসলামী ঐক্যজোট, কল্যাণ পার্টি, এলডিপি, জাগপা, বাংলাদেশ লেবার পার্টি, বাংলাদেশ জাতীয় দল, বাংলাদেশ ন্যাপ, এনডিপি, ডেমোক্রেটিক লীগ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, এনপিপিসহ অন্যান্য দলের নেতারা তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.