বৃহঃ. সেপ্টে ২৪, ২০২০

জগন্নাথপুরে কেসিএইচ এর সহযোগিতায় বেঁচে গেল মিলন মিয়ার পরিবার

১ min read

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি::

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নে তিন যুগ আগে কামার খাল গ্রামে এসে থাকার আশ্রয় পায় মিলন মিয়া। এরপর এ বাড়ি ঐ বাড়ি বদল হলেও এখনও কামার খালেই আছেন। দিন মজুর মিলন মিয়া গত সপ্তাহ তাহার ছেলের প্রসূতি বউকে নিয়ে জগন্নাথপুর গেলে সেখানের ডাক্তার সিলেটে যেতে বললেন, করোনা পরিস্থিতিতে সিলেট সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা একটু মুশকিল দেখা দিলে  রোগির অবস্থা চিন্তা করে বাধ্য হয়ে রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পকেটে কয় টাকা আছে সেটার হিসেব না করে আল্লাহর উপর ভরসা রেখেই ভর্তি করেন। যে কয় টাকা ঋন করে নিয়ে এসেছিল পরের দিনই শেষ হয়ে গেল। শুক্রবারে গ্রামের মসজিদে কিছু টাকা উঠানো হল। এর পর কামারখাল চারহাটি হাসামপুর সমাজ কল্যাণ সংস্থার ওয়াট্স আপ গ্রুপে জানানো হলে, লন্ডন থেকে সম্পূর্ন দায়ীত্ব নেয়া হয়। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সামাজিক সংগঠন কেসিএইচ গ্রুপের সকল সদস্য কালেকশন করে পয়ষট্টি হাজার টাকা তুলেন।

 

হাসপাতালের বিল ঔষুধ যাতায়াত খরচ সহ ঋনদারের ঋন ও পরিষোধ করে দেয়া হয়। এতে ঋনের বোঝা থেকে বেঁচে যায় দিন মজুর মিলন মিয়া ও তার পরিবার। অবশেষে নাতি কোলে নিয়ে মন ভরে কেসিএইচ এর সকলের মঙ্গল কামনা করেছেন। উল্লেখ্য যে, এই গ্রুপ বিগত দু’বছর ধরে বন্যা, কাল-বৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ ও অসুস্থ অসহায় মানুষের পাশে আর্থিক সহযোগীতা ও সঠিক পরামর্শ দিয়ে মানবতার বাতিঘর হিসেবে আশার আলো হয়ে এতোমধ্যে সবার ভরসার জায়গা করে নিয়েছে।

 

 

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.