অক্টোবর ২০, ২০২০

ক্যাম্বোডিয়ায় প্রস্তাবিত নারীর পোশাক আইনের প্রতিবাদ : ‘আমি যা পরছি তার জন্য আমাকে কেন জরিমানা করা হবে?’

১ min read

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্ট:ক্যাম্বোডিয়ায় ১৮-বছর বয়সী মলিকা টান যখন প্রথম জানতে পারলেন যে নারীরা কী ধরনের পোশাক পরবেন এবং পরতে পারবেন না সেবিষয়ে সরকার একটি আইনের খসড়া তৈরি করছে তখন তিনি এতোটাই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়লেন যে এই উদ্যোগের বিরুদ্ধে তিনি একটি অনলাইন পিটিশন শুরু করে দিলেন।

প্রস্তাবিত ওই আইনে কোন নারী শরীর দেখা যায় এরকম পোশাক পরলে তাকে জরিমানা করার কথা বলা হয়েছে।

জন-শৃঙ্খলা জনিত এই খসড়া আইনে নারীদের “খুব বেশি খাটো অথবা খুব বেশি খোলামেলা” পোশাক পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাব রাখা হয়েছে। আইনটিতে পুরুষের খালি গায়ে থাকা নিষিদ্ধ করারও প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।

সরকার বলছে, দেশটির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য এবং সামাজিক মান মর্যাদা রক্ষার উদ্দেশ্যে বিলটি আনা হয়েছে। সরকারের এই উদ্যোগ জানাজানি হওয়ার পর সেটা ব্যাপক সমালোচনার মুখেও পড়েছে।

মলিকা মনে করেন, এধরনের একটি আইন করার উদ্যোগ নারীদের ওপর আক্রমণ।

মলিকা টান

“ক্যাম্বোডিয়ার একজন তরুণী হিসেবে ঘরের বাইরে বের হলে আমি নিজেকে নিরাপদ বোধ করতে চাই, যে পোশাক পরতে আমার ভালো লাগবে আমি সেই জামা কাপড় পরতে চাই। আমি আমার পরিহিত পোশাকের মাধ্যমে নিজেকে প্রকাশ করতে চাই, এবং আমি চাই না সরকার এখানে কোন সীমা বেঁধে দিক,” বলেন তিনি।

“আমি মনে করি নারীদের খাটো স্কার্ট পরা বন্ধ করার জন্য আইন বাস্তবায়ন করা ছাড়াও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ধরে রাখার আরো অনেক উপায় আছে।”

মলিকা টানের অনলাইন পিটিশন শুরু হয়েছে অগাস্ট মাসে এবং এর মধ্যেই ২১ হাজারের বেশি মানুষ তাতে সই করেছেন। সুত্র – বিবিসি বাংলা।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.