জানুয়ারি ১৬, ২০২১

মালয়েশিয়ার অভিবাসন বন্দিশালায় গত দুই বছরে ১৭ বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে অসংখ্য মানুষ পারি  জমান বিদেশে , তার বিরাট একটি অংশ যায় মালয়েশিয়া , যার অধিকাংশ যান অবৈধ ভাবে আর তাদের মধ্য থেকেে অনেকেই যান এই বন্দিশালায় সেখানে মানবেতর জিবন যাপন কাটাতে  হয় ।

মালয়েশিয়ার বিভিন্ন অভিবাসন বন্দিশালায় গত দুই বছরে ১৭ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। দেশটির জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের এক নথিতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন রোগ ও অজ্ঞাত কারণে মোট ১১৮ বিদেশি নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে ওই সময়ে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের এক খবরে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালে ৮৩ ও ২০১৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত আরো ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৬৩ জন মিয়ানমার, ১৭ জন বাংলাদেশ, ১০ জন ইন্দোনেশিয়া, ছয়জন ভারত এবং ৪ জন পাকিস্তানের নাগরিক। বাকিরা কম্বোডিয়া, নাইজেরিয়া, নেপাল, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইনস, শ্রীলঙ্কা, কেনিয়া ও তাঞ্জানিয়ার নাগরিক।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের তথ্য অনুযায়ী দেশটিতে চার লাখের মতো বাংলাদেশি অবস্থান করছেন। এর মধ্যে ভালো সংখ্যক বাংলাদেশির বৈধ কাগজপত্র নেই। দেশটিতে প্রায় অবৈধ বিদেশি নাগরিকদের আটক করে অভিবাসন বন্দিশালায় রাখা হয়। খবরে বলা হয়েছে, এর আগে কখনও অভিবাসন বন্দিশালায় মৃত্যুর পরিসংখ্যান প্রকাশ করা হয়নি। মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই মৃত্যুর পরিসংখ্যান তৈরি করেছে মানবাধিকার কমিশন।

মালয়েশিয়ার প্রতিবেশী দেশ ইন্দোনেশিয়া ও থাইল্যান্ডের অভিবাসন বন্দিশালাগুলোতে এ মৃত্যুর হার বেশি কি না তা জানা যায়নি। উভয় দেশের সরকার জানিয়েছে, এ ধরনের তথ্য প্রকাশ করা হয় না। মালয়েশিয়ার বন্দিশালাগুলোতে মৃত্যুর হার যুক্তরাষ্ট্রের চেয়েও বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের গত বছর ১০ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.