অক্টোবর ২৪, ২০২০

নারায়নগঞ্জের সাংবাদিক ইলিয়স হত্যার প্রতিবাদে সিলেট বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভা ও মানবন্ধন

১ min read

সৈয়দ মুহিবুর রহমান মিছলু সিলেট থেকে:নারায়নগঞ্জে দৈনিক বিজয় পত্রিকার সাংবাদিক ইলিয়াস হত্যার প্রতিবাদে সিলেট বিভাগীয় প্রেসক্লাবের উদ্যোগে (১৭ অক্টোবর) বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সিলেট বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি খায়রুল আলম সুমনের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাজিদুর রহমান সাজুর সঞ্চালনায় সভা ও মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বক্তব্য দেন ও উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি খায়রুল আলম সুমন, সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ মুহিবুর রহমান মিছলু, দুর্জয় আহমদ, কামরান তালুকদার, বাপ্পা দাস, মান্নান, নাসিম আহমদ, আতিকুর রহমান মান্না, এমরান আহমদ, সাজু আহমদ, আশফাকুর রহমান, ফারুক আহমদ, আব্দুল গফুর রাজু, ইউসুফ আলী, সবুজ আহমদ, আলমগীর আহমদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য মাদক ব্যবসায়ী ও চুরাই গ্যাস সংযোগকারীদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করার জেরে নারায়নগঞ্জের স্থানীয় দৈনিক বিজয়ের সংবাদকর্মী ইলিয়াসকে গত রোববার (১১ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের জিওধারা চৌরাস্তায় প্রকাশ্যে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এই খুনের ঘটনায় ওইদিন রাতেই সাংবাদিক ইলিয়াসের দ্বিতীয় স্ত্রী জুলেখা বেগম বাদী হয়ে তুষারসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
আসামিরা হলেন- তুষার (২৮), মিনা (৬০) ও মিসির আলী (৫৩), হাসনাত আহমেদ তুর্জয়(২৪), মাসুদ (৩৬), সাগর (২৬), পাভেল (২৫) ও হজরত আলী (৫০)।
এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বন্দর থানা পুলিশ ওই রাতেই তুষার, মিনা ও মিসির আলীকে গ্রেফতার করে। উদ্ধার হয় হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা ছুরি।

গ্রেফতারের পর সোমবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুরুন নাহার ইয়াসমিনের আদালতের নির্দেশে তিন আসামি তুষার, মিনা ও মিসির আলীকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

গত বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে ৩ দিনের রিমান্ড শেষে নিজের দোষ স্বীকার করে নারায়ণগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহামেদ হুমায়ূন কবীরের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় তুষার।
জবানবন্দিতে তুষার জানায়, ২০১৮ সালে শামীম নামে এলাকার একজনের সঙ্গে ঝগড়া হয় তুষারের। সেই ঝগড়ায় মারামারিতে শামীমের মাথা ফেটে যায়। সে সময় শামীমকে উসকানি দিয়ে তুষারের বিরুদ্ধে মামলা করার জন্য প্ররোচিত করে সাংবাদিক ইলিয়াস। এ ছাড়া জজ মিয়ার বাড়িতে গ্যাসের লাইন নিয়ে দ্বন্দ্ব হয় তুষার ও ইলিয়াসের। সেই দুই ঘটনার জের ধরেই ক্ষোভের কারণে হত্যা করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জের বন্দরের স্থানীয় সংবাদপত্র দৈনিক বিজয়ের সাংবাদিক ইলিয়াসকে। ৩ দিনের রিমান্ড শেষে আসামি তুষার বিজ্ঞ আদালতে দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। পরে আদালতের নির্দেশে আসামি তুষারকে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.