ডিসেম্বর ২, ২০২০

নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র কর্মসূচিতে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলা মান্না-তৈমূরসহ আহত ৩০

১ min read

ডেস্ক রিপোর্ট :নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জে বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় এবং বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা তৈমূর আলম খন্দকারের জন্মদিন উপলক্ষ্যে বিএনপি একটি অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীরা। এ সময় সন্ত্রাসীরা অনুষ্ঠানের প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে হামলা চালায় এবং মঞ্চে থাকা চেয়ার টেবিল ও সাউন্ড সিস্টেম ভাঙচুর করে।

আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীরা মঞ্চ থেকে টেনে হিচড়ে মাটিতে ফেলা হয়েছে তৈমূর আলম খন্দকার, তার মেয়ে মার-ই-য়াম খন্দকার, নাগরিক ঐক্যের নেতা মাহমুদুর মান্না প্রমুখদের। এতে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে।
সোমবার, অক্টোবর ১৯, ২০২০ বিকেলে রূপগঞ্জের রূপসী খন্দকার বাড়িতে ওই হামলার ঘটনা ঘটে।

তৈমূর আলম খন্দকারের সহকারী আলাল জানান, বিএনপি চেয়ারপারসনের রোগমুক্তি কামনা, তৈমূর আলম খন্দকারের জন্মদিন উপলক্ষ্যে রূপসী খন্দকার বাড়িতে দোয়ার আয়োজন করা হয়। বিকেল ৪টার মধ্যে মঞ্চে উপস্থিত হন মাহমুদুর রহমান মান্না, তৈমূর আলম খন্দকার, তার মেয়ে মার-ই-য়াম সহ অনেকেই।

ওই সময়ে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের লোকজন অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। উপস্থিত লোকজনদের একের পর এক মারধর করতে থাকে। মঞ্চ থেকে নেতাদের ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। এছাড়া হামলাকারীরা সেখানে থাকা বেশ কয়েকটি গাড়ি ও মটরসাইকেল ভাঙচুর করে।

তৈমূর আলম খন্দকার জানান, তাদের অনুষ্ঠানে স্থানীয় আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীরা হামলা করেছে। এতে অনেক আহত হয়েছে।

তৈমুর আলম খন্দকারের ছোট ভাই নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সভাপতি মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ অভিযোগ করে বলেন, রূপসীর খন্দকার বাড়িতে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শেষ দিকে যখন প্রধান অতিথি বক্তব্য দিচ্ছেন তখন সরকার দলীয় অঙ্গসংগঠন ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা এ হামলা চালায়। হামলায় অন্তত ২৫-৩০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় গাড়ি, সাউন্ড সিস্টেম, চেয়ার, মোবাইল ভাঙচুর করা হয়েছে।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.