অক্টোবর ২৭, ২০২০

জগন্নাথপুরে ছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বিদ্যালয়ে হামলা আহত ৫

১ min read

নতুন আলো নিউজ ডেস্ক : জগন্নাথপুরে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার ঘটনার প্রতিবাদ করায় বখাটের নেৃতত্বে ৭/৮ উচ্ছ্রিংখল যুবকরা অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পৌরশহরের আবদুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাদের হামলায় ৫ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, ওই বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে পৌর এলাকার বাসিন্দা সিরাজুল ইসলামের বখাটে পুত্র তারেক মিয়া ওরফে বাবর বেশ কিছুদিন ধরে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। সোমবার বিদ্যালয় ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে বখাটে তারেক মেয়েটির পথরোধ করে তার ওড়নায় টানা হেছড়া করে। এ সময় মেয়ের চাচাত্ব ভাই ও ওই বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্র হবিবনগর এলাকার বাসিন্দার আবদুল জব্বারের পুত্র আনহার মিয়া প্রতিবাদ করে ওই বখাটেকে মারধর করেন। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটে বাবর’র নেতত্বে ৭/৮ বখাটে দেশীয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মঙ্গলবার সকালে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে আনহার মিয়ার ওপর হামলা চালায়। এ সময় বিদ্যালয়ের অপর শিক্ষার্থীদের এগিয়ে এলে হামলাকারীরা তাদের ওপরও হামলা চালিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। হামলায় আহত হন শিক্ষার্থীরা হলেন আনহার মিয়া, আতিকুর রহমান, কুতুব উদ্দিন, রনি মিয়া ও বিদ্যালয়ের আয়া মিতা রানী দাস প্রমুখ। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল বের সহকারে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। এসময় নির্বাহী কর্মকর্তার পক্ষে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শামিম আল ইমরান হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগত ব্যবস্থা নেয়া হবে এমন আশ্বাস দিয়ে শিক্ষার্থীদের শান্ত করেন।

উত্ত্যক্তের শিকার আবদুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম’র এ প্রতিবেদক কে জানান, ‘প্রায় ১৫ দিন ধরে বখাটে তারেক ওরফে বাবর আমাকে বিদ্যালয়ে আসা যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। সোমবার বিকেলে বিদ্যালয় ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে বখাটে তারেক আমার পথরোধ করে ওড়নায় টানা হেছড়া শুরু করে এ সময় আমি চিৎকার দিলে আমার চাচাত্ব ভাই ও বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী এগিয়ে এসে আমাকে রক্ষা করেন’।

হামলার শিকার বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেনীর ছাত্র আনহার মিয়ার জানান, স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় আমি প্রতিবাদ করেছিলাম। এ ঘটনায় বখাটের নেতৃত্বে ৭/৮ দলবদ্ধ হয়ে অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বিদ্যালয়ে এসে আমার ওপর হামলায় করেছে।

ঘটনাস্থল পরির্দশনকারী জগন্নাথপুর থানার এস আই আবদুস সালাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছি। ওই বিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে উক্ত্যক্ত করার ঘটনার প্রতিবাদ করায় হামলা চালিয়েছে বখাটেরা প্রাথমিকভাবে এটি মনে হচ্ছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আবদুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিত দাস আমাদের প্রতিনিধি কে জানান, বিদ্যালয়ে হামলার ঘটনায় আমি থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করেছি। তবে ছাত্রী উত্ত্যক্ত’র ঘটনা তিনি জানেন না বলেন জানান।

জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হারুনুর-অর-রশিদ চৌধুরী  জানান, বিদ্যালয়ের হামলার পিছনে ছাত্রী উক্ত্যক্ত করার ঘটনার হতে পারে। পুলিশ গুরুত্বসহকারে তদন্ত করছে।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ আমাদের প্রতিনিধি কে জানান, বিষয়টি জানতে পেয়ে আমি আইনানুগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছি। এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোখলেচ্ছুর রহমানকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ঘটনাটি তদন্ত করে রির্পোট দেয়ার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.