মার্চ ৬, ২০২১

গৃহবধুর গোপনাঙ্গে বৈদুত্যিক শক দেওয়ার অভিযোগ এস আই বড়ুয়ার বিরুদ্ধে

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের এক গৃহবধুর গোপনাঙ্গে বৈদুত্যিক শক দেওয়ার অভিযোগ করেছেন সদর মডেল থানার এস আই মানষ বড়ুয়ার বিরুদ্ধে। গতকাল বিকাল ৫টায় কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন গৃহবধু জীবন আরা। তিনি ঝিলংজা ইউনিয়নের আলী আহমদ কোম্পানীর স্ত্রী।

তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার স্বামী একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ি। আমাদের ব্যবসায়িক সুনাম ও পারিবারিক ঐতিহ্য বিনষ্ট করতে একটি মহলের ইন্দনে একটি মিথ্যা মামলা সাজিয়ে আমাকে আটক করে। পরে একদিনের রিমান্ডে এনে মডেল থানার উপপরিদর্শক জিজ্ঞাসাবাদের নামে আমার কাছ থেকে ৩০ লাখ টাকা দাবী করে। তার দাবীমত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তিনি আমার স্তনে ও গোপনাঙ্গে বৈদ্যুতিক শক লাগিয়ে নির্যাতন করে। এতে আমি গুরুতর আহত হই। সম্প্রতি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে এসেছি।

তিনি লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, বিচার প্রত্যাশায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছি। বিষয়টি নিয়ে মুখ না খোলার জন্য পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দিয়ে যাচ্ছে। এই দুঃসময়ে ইচ্ছা থাকা স্বত্বেও পুলিশের ভয়ে কেউ পাশে দাঁড়ানোর সাহস করছে না। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, দ্রুত উন্নত চিকিৎসা না মিললে কান্সারে আকার ধারণ করতে পারে আমার এই ক্ষত গুলো।

এত নির্মম নির্যাতন করা স্বত্বেও পুলিশ ক্ষান্ত হননি। এখন প্রাণে মেরে লাশ গুমের হুমকি ধমকি দিচ্ছে। আমার বিচরণ জগত রুদ্ধ করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এই পৈশাচিক নির্যাতনের বিচার পেতে আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি। তিনি অবিলম্বে নির্যাতনকারী পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার নারী কল্যাণ সমিতির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ফাতেমা আরনিজ ডেজী, সাধারণ সম্পাদক হোসনে আরা অর্থ সম্পাদক রেহেনা আকতার।

এ ব্যাপারে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ডঃ এ কে ইকবাল হোসেন বলেন, অভিযোগটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সূত্র দৈনিক কক্সবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.