ডিসেম্বর ২, ২০২০

খালেদা জিয়ার দেওয়া ভিশন ২০৩০ মেধাশূন্য প্রলাপ ছাড়া কিছু নয়: ওবায়দুল কাদের

১ min read

নতুন আলো নিউজ ডেস্ক :বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দেওয়া ভিশন ২০৩০-কে ‘মেধাহীন, অন্তঃসারশূন্য, দ্বিচারিতাপূর্ণ ও জনবিচ্ছিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রলাপ ছাড়া কিছুই নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এই ভিশন তুলে ধরার পরপরই আজ বুধবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন কাদের। ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার এই ভিশন-২০৩০ একটি ফাঁকা প্রতিশ্রুতির ফাঁপানো রঙিন বেলুন। এই বেলুন অচিরেই চুপসে যাবে। জাতির সঙ্গে একটি তামাশা ও প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘পরের মেধাস্বত্ব চুরি করা একটি নৈতিক অপরাধ। এটা একধরনের রাজনৈতিক অসততা (পলিটিক্যাল ডিসঅনেস্টি)। একটি রাজনৈতিক দল কতটুকু দেউলিয়া হলে অপর একটি রাজনৈতিক দলের দেওয়া আইডিয়া এবং ভাবনাচিন্তা (থটস) চুরি নির্লজ্জভাবে চুরি করতে পারে। বিএনপি নকল (ইমিটেট) করতে পারে। কিন্তু উদ্ভাবন (ইনোভেট) করতে পারে না। ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রকৃতপক্ষে বিএনপির ভিশন হচ্ছে হাওয়া ভবন বানিয়ে লুটপাট, দুর্নীতি আর এতিমের টাকা মেরে খাওয়ার ভিশন। খালেদা জিয়ার তুলে ধরা ভিশনে দ্বিকক্ষবিশিষ্ট আইনসভার বিষয় উল্লেখ প্রসঙ্গে কাদের বলেন, ‘দ্বিকক্ষবিশিষ্ট পার্লামেন্ট দাবির মাধ্যমে আমাদের সংবিধানের মৌলিক কাঠামো পরিবর্তন করতে চায়। আমি তাঁকে প্রশ্ন করতে চাই, বাংলাদেশের ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক বাস্তবতা সত্ত্বেও তিনি এ ধরনের ব্যবস্থা প্রবর্তনের মাধ্যমে কাদেরকে খুশি করতে চান?’ কাদের খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘তিনি সংসদকে কার্যকর করার কথা বলেছেন, অথচ তিনি তো বিরোধীদলীয় নেতা থাকতে মাত্র ১০ দিন সংসদে গিয়েছিলেন। তাঁর মুখে সংসদ কার্যকরের কথা মানায় না।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তিনি (খালেদা জিয়া) বরাবরের মতো এবারও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রসঙ্গ এড়িয়ে গেছেন। তিনি স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষে আছেন এবং পক্ষেই থাকবেন। উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তিকে সঙ্গে নিয়েই তারা রাজনীতি করবে। তাদের ভিশন যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষার ভিশন, সন্ত্রাসবাদ কায়েমের ভিশন, দেশ বিক্রির ভিশন।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগে জননেত্রী শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির সামনে ‘ভিশন-২০২১’ তথা রূপকল্প-২০২১ উপস্থাপন করেছিলেন। ইতিপূর্বে কোনো রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য কোনো ধরনের রোডম্যাপ উপস্থাপন করেনি। জনগণ ২০০৮ সালে নিরঙ্কুশভাবে জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘ভিশন-২০২১’ তথা ডিজিটাল বাংলাদেশের ওপর আস্থা স্থাপন করে আওয়ামী লীগকে রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব অর্পণ করেছে। বাংলাদেশের জনগণ নিরবচ্ছিন্নভাবে গত নয় বছর ধরে প্রত্যক্ষ করেছে একটি দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য কী ‘ভিশন’ থাকা উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.