জানুয়ারি ২৩, ২০২১

গাজীপুরের শ্রীপুরে শিশুকে হত্যার অভিযোগে মা গ্রেপ্তার

১ min read

নতুন আলো নিউজ ডেস্ক :গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় এক মায়ের বিরুদ্ধে গত বুধবার রাতে আট মাসের শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার থানায় মামলা হয়েছে। শিশুটির মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
নিহত শিশুটির নাম আদনান লাবিব সাদ। সে শ্রীপুরের মাওনা চকপাড়া এলাকার হারুন অর রশিদের ছেলে।
পুলিশ ও শিশুর পরিবার সূত্র জানায়, আড়াই বছর আগে মাওনা চকপাড়া এলাকার হারুন অর রশিদের সঙ্গে মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী থানার করিম মিয়ার মেয়ে সামিয়া আক্তার বীথির (১৮) বিয়ে হয়। বিয়ের পর ভালোই কাটছিল তাঁদের দাম্পত্য জীবন। সন্তান গর্ভধারণের কিছুদিন পর থেকেই এ দম্পতির মধ্যে পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে কলহের সৃষ্টি হয়। বুধবার রাতেও তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হয়েছে। একপর্যায়ে স্ত্রী-সন্তান রেখে নিজ ঘর থেকে বের হয়ে হারুন তাঁর মায়ের ঘরে ঘুমাতে যান। কিছুক্ষণ পর হারুনের মা হামিদা বেগম ছেলেকে বুঝিয়ে আবার নিজ ঘরেই পাঠিয়ে দেন। ঘরে গিয়ে হারুন দেখতে পান, তাঁর ছেলে বমি করছে। ছেলের শরীর ও হাত-পা অনেকটা নীল হয়ে গেছে। এ সময় হারুন চিৎকার শুরু করেন। আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। হাসপাতালে নেওয়ার আগেই শিশুটি মারা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই শিশুর লাশ উদ্ধার এবং শিশুর মা সামিয়াকে আটক করে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
হারুন অর রশীদ বলেন, সামিয়া খিটখিটে স্বভাবের। বুধবার রাতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাঁর সঙ্গে বাগ্বিতণ্ডা হয়। পরে তিনি নিজ ঘর ছেড়ে অন্য ঘরে ঘুমাতে যান। রাত ১১টার দিকে ঘরে থাকা কীটনাশক দুধের ফিডারে মিশিয়ে সাদকে খাইয়ে দেন সামিয়া। কিছু সময় পরই সাদ বমি করে এবং মারা যায়।
শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ আজিজুল হক প্রথম আলোকে বলেন, সামিয়া আক্তারকে গতকাল বিকেলে গাজীপুর বিচারিক আদালত-৩-এর হাকিম আবদুল হাইয়ের আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে সামিয়া নিজের সন্তানকে দুধে বিষ মিশিয়ে খাওয়ানোর কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। এসআই আরও বলেন, এ ঘটনায় হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় সামিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। সামিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.