নভেম্বর ৩০, ২০২০

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সহ নেতৃবৃন্দের গাড়ীবহরে হামলায় বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিবাদ সভা

নিজস্ব প্রতিনিধি :রাঙ্গুনিয়ায় আওয়ামী সন্ত্রাসীদের সশস্ত্র হামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর  সহ বিএনপি’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দের গাড়ীবহরে হামলার প্রতিবাদে বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়।
উক্ত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক রফিকুর রহমান রফু , সভা পরিচালনা করেন বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব মজনু মিয়া । বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক কবির আহমেদের কোরআন তেলাওয়াতেরমাধ্যমে শুরু হওয়া প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সুজাতুর রাজা, বিশেষ অতিথি বৃন্দ যথাক্রমে যুক্তরাজ্য বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাহিদ তালুকদার, বার্মিংহাম সিটি বিএনপির সভাপতি জাহেদ চৌধুরী, যুক্তরাজ্য বিএনপির উপদেষ্টা কাজী আংগুর মিয়া, মৌলভীবাজার থানা বিএনপির সভাপতি আয়াজ আহমদ, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির সহ সভাপতি নুরুজ্জামান, আলী আহমদ হেলাল, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান চৌধুরী, বার্মিংহাম সিটি বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ছমির আলী, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড যুবদলের সাবেক সভাপতি জালাল উদ্দিন আহমদ ও বার্মিংহাম সিটি স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক বাবরুল ইসলাম ।

সভায় বক্তব্য রাখেন বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল কবির, সহ সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ উদ্দিন, বার্মিংহাম সিটি যুবদলের সাবেক সহ সভাপতি কয়ছর আলী শাহিন, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড যুবদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চুনু মিয়া, এমরান আহমদ ও পাপ্পু চৌধুরী ।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুন, যুবদল নেতা অলি আহমেদ, সুহেল আহমদ,স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা শামীম আহমদ, মোর্শেদ আহমদ ,আব্দুল লতিফ ও আব্দুল মমিন প্রমুখ ।

নেতৃবৃন্দ বলেন এই হামলার ঘটনাটিকে বর্তমান বিনা ভোটের সরকারের আরেকটি হিংসাশ্রয়ী অসুস্থ রাজনীতিরই বহিঃপ্রকাশ’ আওয়ামী লীগ গুন্ডামিকেই আশ্রয় করেছে টিকে থাকার অবলম্বন হিসেবে। তাই শান্তি, স্বস্তি ও জননিরাপত্তাকে বিসর্জন দিয়ে নৈরাজ্যকেই বেছে নিয়েছে।

জনসমর্থনহীন সরকার  ক্ষমতা আঁকড়ে রাখতেই অপরাধ ও অপরাধীদের সহযোগী হিসেবে বেছে নিয়েছে ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.