জানুয়ারি ২৪, ২০২১

দৈনিক মাতৃছায়া পত্রিকার সিলেট বিভাগীয় সম্মেলন সাংবাদিকতা সৎ ও মহৎ কাজ, ক্ষমতার অপব্যাবহার নয়…সাংবাদিক খায়রুল আলম সুমন

১ min read

নিজস্ব প্রতিবেদক::

জাতিয় দৈনিক ‘মাতৃছায়া’ পত্রিকার বিভাগীয় সম্মেলন আজ   সিলেটের স্থানীয় একটি কমিনিটি সেন্টারে অনুষ্টিত হয়।

সিলেট বিভাগীয় বুর‌্যো প্রধান সাংবাদিক খায়রুল আলম সুমনের সভাপতিত্বে ও দক্ষিন সুরমা প্রতিনিধি মো: সবুজ মিয়া এবং বিশ্বনাথ প্রতিনিধি রোহেল উদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় সম্মেলন সভায় সিলেট বিভাগের জেলা, উপজেলা প্রতিনিধিবৃন্ধ উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন দৈনিক মাতৃছায়ার সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি এ্যাডভোকেট মো: নুরুল ইসলাম টান্ডু এবং ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এসএম আবদুল হালিম বাশার। উনারা ভিডিও কনফারেন্সে সিলেট বিভাগের প্রত্যেক প্রতিনিধিদের বলেন আপনার সঠিক পথে কাজ করেন, আপসাংবাদিকতা থেকে দূরে থাকবেন। সাংবাদিকরা জাতির বিবেক তাই আপনারা সততার সাথে কাজ করে জাতির কাছে সত্য তুলে ধরেন। বর্তমানে দেখা যায় কিছু হলুদ সাংবাদিকরা আছে যারা দেশ ও জাতির দুশমন তাই আপনাদেরকে সজাগ হয়ে দেশ ও জাতির মঙ্গলের জন্য কাজ করে যেতে হবে আমরা আশাবাদী সারা দেশে আমাদের পত্রিকার সাংবাকিরা দেশ ও জাতির জন্য ভাল কাজ কওে যাবে এটাই আমাদের দৃড় বিস্বাস।

উক্ত সম্মেলনে পত্রিকার সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা কালে অনুষ্টানের সভাপতি দৈনিক মাতৃছায়া’র বিভাগয়ি বুরে‌্যা প্রদান থায়রুল আলম সুমন তার সমাপনী বক্তব্যকালে বলেন, সাংবাদিকের হাতের কলমটা হচ্ছে সব চাইতে মূল্যবান একটি সম্পদ এই কলম দ্বরা জাতিকে বস্ত নিষ্ট এবং সত্যতা তুলে ধরা। পাশাপাশি জাতির জন্য সৎ ও মহৎ কাজ করে যাওয়া। এটা কোন পুতুল খেলা নয়। একজন সাংবাদিক যদি সততার সাথে কাজ করে দেশ ও জাতির ভাল মন্দ, সুবিদা, অসুবিদা প্রকাশ করে জাতির উপকার করেন তাহলে সৃষ্টিকর্তারসর্বপ্রথম যে বস্তু সৃষ্টি করেছিলেন সেটার পবিত্রতা এবং মর্যদা রক্ষা করলেন। তাই আপনি শুধু সাংবাদিক নয় গোটা দেশবাসীর অহংকার। যার কারনে একজন প্রকৃত সাংবাদিক মারা যাওয়ার পর তাকে রাষ্টিয়ভাবে পবিত্র শহীদ মিনারে সম্মাননা করা হয়। যদি একজন সৎ এবং মহৎ সাংবাদিক হয়ে থাকেন। আপনার এই কর্ম যদি সঠিক কাজে লাগান তাহা আপনার এবাদতের সম-পরিমান হবে যা শুধু দুনিয়াতে নয় পরকালেও আপনি সৃষ্টিকর্তার ছায়া পাবেন।

সৃষ্টিকর্তা মহান উনি ক্ষমতা দিয়ে পরিক্ষা করেন, আবার তিনি ক্ষমতা নিতেও তেমন সময় লাগেনা, মান সম্মান দেওয়ার মালিক যিনি আবার নেওয়ার মালিকও তিনি তা আমাদের স্বরণ রাখতে হবে। আগে দেখা যেত যখন কোন ফেক্স,মোবাইল, ই-মেইল ছিলনা জাতিয় পত্রিকায় সংবাদ পাটাতে হত ডাক মারপথে, এখনও ওই প্রবীন সাংবাদিকরা আছেন দেশের প্রতিটি জেলায়,আজ তারা এই ডিজিটাল যোগের সাংবাদিকদের দেখে তাদের মনে কি প্রশ্ন জাগতে পারে, হে এটা হয়ত যোগের ব্যাপার কিন্তু আমি মনে করি যোগের ব্যাপার হতে পারে তাদের বয়স বেড়ে যেতে পারে, কিন্তু তাদের কলমের বয়স বাড়েনি। আমি মনে করি নবীন লেখকদের এখনও প্রবীন সাংবাদিকদের কাছ থেকে অনেক জিনিস জানার এবং শেখার আছে।

কিন্তু আমরা নবীন লেখকরা তাদের নিকট যাইনা আমরা নিজেকে মনে করি অনেক বড় সাংবাদিক তা কখনও হবেনা ‘জাতির চোখত অন্ধ নয় আমাদের প্রবীনরাই সাংবাদিক’ আর প্রবীনদের সম্মান এবং মর্য়াদা দিলে গর্ভ করে আপনি আমি বলতে পারব আমরা সাংবাদিক। বর্তমান সমাজে সাংবাদিকের ব্যাপারটা ভিন্ন কারন একজন ফটো সাংবাদিক হতে হলে তাকে অবশ্যই ফটো ক্লাবের একজনসদস্য হতে হবে এবং সে যে ফটো তুলবে ওই ফটোর নিচে কি লেখা হবে তা সে নিজে বলতে হবে, তখন থাকে একজন ফটো সাংবাদিক উপাধী দেওয়া যেতে পারে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে তা আর লাগে না কারন পত্রিকার যেমন অভাব নেই তদ্রুপ সাংবাদিকেরও কোন অভাব নেই তার কারন হল কিছু কিছু পত্রিকা দেখা গেছে যে সম্পাদকও লেখাপড়ার যোগ্যতা নেই, টাকা আছে কোন না কোন রাজনৈতিক ছায়ার আচলের সহযোগিতায় সম্পাদক আবার শুধু সম্পাদক নয়, সাংবাদিক নিয়োগ দিতে যে নীতিমালা আছে তাও উনার জানা নেই যাকে নিয়োগ দেবেন তার উপরে কোন প্রকার মামলা আছে কি না বা কতঠুকু শিক্ষিত তাও যানার দরকার নেই উনার, কারন তার একটা মোটরসাইকেল থাকলেই হবে, কারন মটরসাইকেল থাকলেই তিনি হবেন একজন সাংবাদিক পরিচয় পত্রধারী।

পরে সাংবাদিক অথবা প্রেস লিখা একটি ষ্টিকার লাগাবেন উনার মোটরসাইকেলে যাতে প্রশাসনের আইন-শূংখলা বাহীনি কোন সমস্যা না করে, যাতে এ ঢিলে দু’পাথিঁ স্বীকার হয় । এ সমস্ত কারনে দেশে বর্তমানে ভূযা সাংবাদিকের কোন অভাব নেই যার কারনে প্রশাসনও স্বীকার করে যে অনেক সময় প্রেস লেখা মটরসাইকেলদারীরা ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত থাকে বলে প্রশাসন দাবী করেছে । তাই আমার সিলেট বিভাগের দৈনিক মাতৃছায়া পত্রিকার সকল প্রতিধিদের কাছে একটি অনুরুধ আপনারা সৎ ও মহৎ কাজকে কখনও অপব্যাহার করবেন না।

সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-সিলেট জেলা সংবাদদাতা ফয়ছল খাঁন, বিশ^নাথ প্রতিনিধি রোহেল উদ্দিন, দক্ষিন সুরমা প্রতিনিধি মো: সবুজ মিয়া, সোনামগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা মোশহিদ আলম মহিন, দোয়ারা বাজার প্রতিনিধি মোতালিব ভ’ইয়া, সুনামগঞ্জ জেলা বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি শাহ-জাহান মোল্লা, কানাইঘাট প্রতিনিধি মফিজুর রহমান নাহিদ,শাহপরান প্রতিনিধি আব্দুল হান্নান পান্না, শাহপরান ফটো সাংবাদিক তানভির মাহমুদ রাসেল, ক্রাইম সংবাদদাতা জাহিদ আহমদ, ঘোয়াইনঘাট প্রতিনিধি অমূল্য রতন দেব, ওসামানীনগর প্রতিনিধি আব্দুল হাদী, গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি বদরুল আলম, সিলেট জেলা বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি কয়েছ আহমদ টুটুল, দক্ষিন সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি মো: আবু সঈদ, জগন্নাথপুর প্রতিনিধি জুয়েল আহমদ মাহিন, জগন্নাথপুর ফটো সাংবাদিক মোরাদ আহমদ, বিশেষ তত্ব সংগ্রহদাতা নজির আহমদ, জগন্নাথপুর বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি শাহিদুর রহমান মিয়া সহ বিভিন্ন অথিতিবৃন্ধ উপস্থিত ছিলেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.