জুন ২৪, ২০২১

ফ্রান্সে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন শেখ হাসিনা

১ min read

নিজস্ব প্রতিনিধি :ফ্রান্স বিএনপির উদ্যোগে ও তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হাসিনা বিরোধী স্মরণ কালের অন্যতম বৃহৎ এ প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ কর্মসূচীর আয়োজন  করা হয়। আয়োজন কারীরা হলেন ফ্রান্স বিএনপির সভাপতি সৈয়দ সাইফুর রহমান, সিনিয়র সহসভাপতি হাজী হাবিব, প্রধান উপদেষ্টা আহসানুল হক বুলু সহ ফ্রান্স বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দ। কেন্দ্রীয় বিএনপির অন্যতম আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান নেতৃত্বে সমাবেশ সফল করতে সবাইকে উজ্জীবিত করেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক।
ফ্রান্সে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার এই সফরকে ঘিরে ইউরোপ বিএনপি নেতৃবৃন্দ সকাল থেকে নির্ধারিত কনফারেন্স হলের সামনে ব্যাপক বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন।
বিক্ষোভে য্যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব এম এ মালেকের নেতৃত্বে যুক্তরাজ্য বিএনপির দুই শতাধিক নেতাকর্মিদের সাথে নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ যোগ দেন।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে লাইভ সম্প্রচারের মাধ্যমে প্রতিবাদ মুখর ফ্রান্সে এর চিত্র দেখা গেছে। প্রচন্ড শীত ও তুষারপাত উপেক্ষা করে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মিরা শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রর্দশন করেন। এসময় বর্তমান সরকার বিরোধী নানা শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে গোটা এলাকা।বিশাল বিক্ষোভের মধ্যে দিয়ে ওয়ান প্ল্যানেট সামিট আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগদেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর ফ্রান্স সফরকে কেন্দ্র করে ফ্রান্স বিএনপি এই বিক্ষোভ সমাবেশ ও কালো পতাকা প্রদর্শন কর্মসূচির আয়োজন করে।

ওয়ান প্ল্যানেট সামিট আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে ফ্রান্সের প্যারিসে শেখ হাসিনার অংশগ্রহনের প্রতিবাদে বেলজিয়াম বিএনপি ফ্রান্স কনফারেন্স হলের সামনে শেখ হাসিনাকে কালো পতাকা প্রদর্শন করে। নেতাকর্মীরা শ্লোগান ও ব্যানার ফেস্টুন প্রদর্শন করে তাকে ধিক্কার জানান।

বিক্ষোভ সমাবেশ উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান,সহ আন্তর্জাতিক  বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খোক  তারেক রহমানের মানবাধিকার বিষয়ক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার এম এ সালাম,যুক্তরাজ্য বিএনপির সহ সভাপতি আক্তার হোসেন টুটুল,  যুক্তরাজ্য বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সুজাতুর রেজা ,বিএনপি নেতা নাসিম আহমদ চৌধুরী ,যুক্তরাজ্য যুবদল সভাপতি রহিম উদ্দিন,বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির সহ সভাপতি নুরুজ্জামান, বার্মিংহাম সিটি বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবজার হোসেন,যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, বার্মিংহাম সিটি বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ছমির আলী, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান চৌধুরী, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়  জালাল উদ্দিন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল কবির, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক রফিকুর রহমান রফু, যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ প্রচার সম্পাদক ঈদন আলী,বার্মিংহাম সিটি স্বেচ্ছাসেবক দলে  আহবায়ক বাবরুল ইসলাম, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপওয়ে কায়ছারুষ্ট ইসলাম সুমন , মিডল্যান্ড যুবদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চুনু মিয়া ,সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোদাচ্ছির খান, বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড যুবদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমরান আহমেদ, সিটি যুবদলের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি কয়ছর আলী শাহিন, বার্মিংহাম সিটি যুবদলের সাবেক সহ সভাপতি বুরহান উদ্দিন,  ও যুবনেতা সৈয়দ রিয়াদ রহমান ,বার্মিংহাম ওয়েষ্ট মিডল্যান্ড যুবদলের নেতা সুহেল আহমদ আব্দুল সালাম,স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি ডালিয়া,

লাকুরিয়া,যুক্তরাজ্য সোয়ানসি বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল কোরেশী,  সুইডেন বিএনপির সভাপতি এমদাদ হোসেন কচি, যুবদলের সভাপতি মো. লিংকন, ডেনমার্ক বিএনপির সভাপতি গাজী মনির আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মো. ওমর ফারুক, ফিনল্যান্ড বিএনপির সভাপতি কামরুল হাসান জনি, সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার মো. আশরাফ, গ্রিস বিএনপির সভাপতি জিএম মুখলেসুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন ঠাকুর, নেদারল্যান্ডস বিএনপির সভাপতি শরিফ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ইতালী বিএনপির সভাপতি মো. আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক ঢালী নাসির উদ্দিন, জার্মানী বিএনপির সভাপতি আকুল মিয়া, সাধারণ সম্পাদক গণি সরকার, বেলজিয়াম বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবু, সিনিয়র সহসভাপতি সাইদুর রহমান লিটন, অস্ট্রিয়া বিএনপি নেতা নেয়ামুল বশির, সুইজারল্যান্ড বিএনপির মইনুল হক অপু, আনোয়ার শেখ, কবির মোল্লা, আয়ারল্যান্ড বিএনপি নেতা কবির আহমেদ প্রমুখ।

 

সমাবেশস্থল ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ব্যানার ও ফেস্টুন প্রদর্শন এবং লিফলেট বিতরণ করে বিক্ষোভকারীরা। গোটা সময় জুড়ে হাসিনাবিরোধী স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত ছিলো প্যারিসের প্রাণকেন্দ্র প্লেস জ্যাকস রৌচি। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় তাৎক্ষণিক সভাও। বক্তারা গুম, খুন ও নির্মম নির্যাতনের মাধ্যমে বাংলাদেশে ভয়াবহ মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং বিশ্ব-ঐতিহ্য সুন্দরবন ধ্বংসকারী রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ নানাবিধ পরিবেশবিরোধী কার্যক্রমের জন্য সরাসরি শেখ হাসিনাকে অভিযুক্ত করেন।

 

মাহিদুর রহমান বলেন, “বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরে না আসা পর্যন্ত হাসিনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-প্রতিরোধ অব্যাহত থাকবে।” তিনি ফ্রান্স ও ইউরোপের অন্যান্য দেশ থেকে আগত বিএনপি নেতৃবৃন্দসহ প্রবাসী বাংলাদেশীদের ধন্যবাদ জানান বিক্ষোভ কর্মসূচী সফল করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.