জানুয়ারি ২৪, ২০২১

যুক্তরাজ্যে ধর্ষণের পর হত্যা করে ফ্রিজে মুসলিম তরুণীর লাশ

১ min read

নরকীয় কায়দায় এক যুবতীকে অপহরণ-ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ফ্রিজে ভরে রাখা হয়। এমন ঘটনা ঘটে যুক্তরাজ্যে। গত ১৯ জুলাই বুধবার কেনসিংটনের পশ্চিম কোম্বে লেনের একটি বাড়ির ফ্রিজের ভেতর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

লন্ডনে সন্দেহভাজন ‘অনার কিলিং’ এর শিকার মহিলার পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ। নিহত ১৯ বছর বয়সী মুসলিম মহিলার নাম সেলিন দোখরান। খবর স্কাই নিউজ।

সেলিন দোখরানকে অপহরণের পর হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয়। তার ঘাড়ে মারাত্মক ছুরিকাঘাতের ফলে তার মৃত্যু হয় বলে ময়না তদন্ত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

সেলিন দোখরান ভারতীয় বংশোদ্ভূত মুসলিম। ১৯৯৬ সালে ওয়ান্ডসওয়ার্থে তিনি জন্ম গ্রহণ করেন। বড় হয়েছেন সাউথ লন্ডনে। ম্যাকআপ এবং কসমেটিক এডভাইজার ছিলেন তিনি।

আরবের মুসলিম এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের জেরে তাকে অপহরণ এবং ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

সেলিন দোখরানকে অপহরণ, ধর্ষণ এবং হত্যার দায়ে ৩৩ বছর বয়সী মুজাহিদ আর্শিদকে অভিযুক্ত করেছে পুলিশ। ২০ বছর বয়সী আরেক মহিলাকে অপহরণ এবং ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগও আছে তার বিরুদ্ধে। মুজাহিদের নির্ধারিত ঠিকানা পায়নি পুলিশ। এই দুই মহিলাকে অপহরণের অভিযোগে অভিযুক্ত আটক অপর ব্যক্তির নাম ভিনসেন্ট তাপ্পু। তার বয়স ২৮ বছর। সে ওয়েস্ট লন্ডনের এ্যাক্টনের বাসিন্দা।

উল্লেখ্য আগামী ২১ আগস্ট তাকে ওলডবেইলি কোর্টে তোলার কথা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.