ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১

২০৫০ সালে পানি সংকটে হাহাকার করবে ৫০০ কোটি মানুষ

নতুন আলো নিউজ ডেস্ক :২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের ৫০০ কোটিরও বেশি মানুষ পানি সংকটে ভুগবে। জলবায়ু পরিবর্তন, পানির চাহিদা বৃদ্ধি ও দূষিত পানির সরবরাহের কারণে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। সোমবার জাতিসংঘের দ্য ওয়ার্ল্ড ওয়াটার ডেভেলপমেন্টের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে সতর্ক করে বলা হয়েছে, নদী, হ্রদ, পানির স্তর, জলাভূমি ও জলাধারের ওপর চাপ কমানো না হলে ভবিষ্যতে সংঘাত সৃষ্টি ও সভ্যতা বিপন্ন হতে পারে।

খরাকবলিত ব্রাজিলের ব্রাসিলিয়ায় প্রকাশিত প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, বিশেষ করে কৃষিক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন সম্ভব। তবে ইস্পাত ও কংক্রিটের পরিবর্তে প্রাকৃতিক সমাধান যা মাটি ও বৃক্ষের ওপর অনেক বেশি নির্ভরশীল তার দিকে ঝুঁকলেই এই পরিবর্তন সম্ভব।

জাতিসংঘের পানিবিষয়ক দফতরের প্রধান গিলবার্ট হৌংবো বলেছেন, ‘ক্রমবর্ধমান ভোগ, পরিবেশের ক্ষয়বৃদ্ধি এবং জলবায়ু পরিবর্তনের বিভিন্ন প্রভাবের কারণে সুস্পষ্টভাবে বিশুদ্ধ পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনার জন্য আমাদের নতুন পদ্ধতি প্রয়োজন।’

প্রতি বছর মানুষ প্রায় চার হাজার ৬০০ বর্গকিলোমিটার এলাকার পানি ব্যবহার করে। এর ৭০ শতাংশ ব্যবহৃত হয় কৃষিক্ষেত্রে, ২০ শতাংশ শিল্পে এবং ১০ শতাংশ গৃহস্থালিকর্মে। গত ১০০ বছরে বৈশ্বিক পানির চাহিদা ছয়গুণ বেড়েছে। আর প্রতি বছর এ চাহিদা এক শতাংশ করে বাড়ছে।

ধারণা করা হচ্ছে, ২০৫০ সালে বিশ্বের জনসংখ্যা ৯৪০ থেকে ১০২০ কোটিতে গিয়ে পৌঁছবে। এ সময়ে প্রতি তিনজনে দু’জন শহরে বাস করবে। সেই সুবাদে বিশুদ্ধ পানির চাহিদা বহুগুণ বেড়ে যাবে। উন্নয়নশীল দেশগুলোতে পানির চাহিদা দ্রুত বাড়ছে। এর মধ্যে আবার জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে জলজ অঞ্চলগুলো আরও প্লাবিত হবে এবং শুষ্ক অঞ্চলগুলো আরও শুষ্ক হবে। তাই পানির এই চাহিদা আরও বাড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.