ডিসেম্বর ২, ২০২০

জগন্নাথ পুরের “নলুয়া বাজার”উচ্ছেদ করা হয়েছে

১ min read

জগন্নাথ পুর থেকে মুহিবুর রেজা তালুকদার টুনু:-সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের নলুয়ার হাওর পাড়ে অবস্থিত ভুরাখালি গ্রামস্থ নলুয়ার বাজার উচ্ছেদ করা হয়েছে। সরকারী নীতিমালা লঙ্গন করে অবৈধভাবে বাজার স্থাপন করায় বুধবার(২৭ শে জুন) সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের নির্দেশে দু’জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট’র নেতৃত্বে বাজারটি উচ্ছেদ করা হয়েছে। এছাড়া বিকেলে জগন্নাথপুর-চিলাউড়া সড়কের পৌরশহরের ইকড়ছই এলাকায় একটি সরকারী খালে মির্জা হাবিবুর রহমান গং কর্তৃক স্থাপিত পাকা দেয়াল উচ্ছেদ করা হয়েছে। এছাড়াও খালে দখলকৃত কয়েকটি স্থাপনা অপসারন করা হয়েছে। উচ্ছেদে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, উচ্চ আদালতে মামলা থাকার পরও কোন কিছু না মেনে প্রশাসন বাজারটি উচ্ছেদ করায় আমাদের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। জগন্নাথপুর উপজেলা ভুমি কার্যালয় সূত্রে জানাযায়,উপজেলার চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নের নলুয়া হাওর বেষ্টিত আলমপুর মৌজার জেএলনং-১৮১ খতিয়ান নং-০১ ও দাগ নং ১০০ তে ১.৪০ শতাংশ সরকারি জায়গা দখল করে ভুরাখালি গ্রামের বাসিন্দা সিদ্দিকুর রহমানগংরা ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে বাজার স্থাপনের উদ্যোগ নিলে জগন্নাথপুর উপজেলা তৎকালীন সহকারী কমিশনার সরকারী ভুমিতে বাজার স্থাপনের কার্যক্রম বন্ধের নোটিশ প্রদান করা হলেও।নোটিশ উপেক্ষা করে বাজারে ছয়টি আধা-পাকা দু’চালা টিনসেড ঘর নির্মাণ করে দুই বছর ধরে বাজার স্থাপন করে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি জগন্নাথপুর সদর ও চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা উচ্ছেদের আবেদন করলে সহকারী কমিশনার ভুমি জগন্নাথপুর জেলা প্রশাসক বরাবরে উচ্ছেদের মামলা দায়ের করেন। যার প্রেক্ষিতে গত ১৯ জুন জেলা প্রশাসক বাজারের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের আদেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আল আমীন সরকার ও মিল্টন চন্দ্র পাল এর নেতৃত্বে র‌্যাব,পুলিশসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেন। উচ্ছেদে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী ভরাখালী গ্রাম নিবাসী সিদ্দিকুর রহমান জানান, উচ্চ আদালতে এবিষয়ে মামলা বিচারাধীন থাকাবস্থায় প্রশাসন বাজারটি উচ্ছেদ করায় ব্যবসায়ীদের মারাত্বক ক্ষতি হয়েছে। তিনি জানান, প্রায় ৩০ বছর ধরে উল্লেখিতস্থানে কাঁচা- কয়েকটি ছোট দোকানঘর তৈরী করে হাট বাজার স্থাপন ছিল। নিচু স্থানে বাজারটি থাকায় বর্ষা মৌসুমে পানির নিচে তলিয়ে যায়। তাই জগন্নাথপুর ও পাশ্ববর্তী দিরাই উপজেলার একাংশের হাওরপাড়ের লোকজনের সুবির্ধাথে এলাকাবাসীর সর্বসম্মতিক্রমে মাঠিভরাট করে বাজারটি স্থাপন করা হয় বলে তিনি জানিয়েছেন। তিনি দাবী করেছেন, উচ্চ আদালতে এ সংক্রান্ত মামলায় স্থিতাশীল থাকার পরও প্রশাসন বাজারটি উচ্ছেদ করেছে। উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্বদানকারী নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আল আমীন সরকার জানান,জেলা প্রশাসকের আদেশের প্রেক্ষিতে সরকারি জায়গা দখলমুক্ত করা হয়েছে। তিনি বলেন,সরকারী জায়গায় বাজার স্থাপনের নীতিমালা লঙ্গন করে সরকারি জায়গা দখল করায় তা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এছাড়া সরকারী খাল দখলমুক্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.