অক্টোবর ২০, ২০২০

সুনামগঞ্জ সীমান্তে ছিনতাইকারী কর্তৃক কয়লা ব্যবসায়ীদের মাঝে আতংক সৃষ্টিকারী আনোয়ার গ্রেফতার

১ min read

মুহিবুর রেজা তালুকদার টুনু জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে কয়লা ব্যবসায়ীর ওপর হামলা করে সোয়া লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় অবশেষে থানা পুলিশ ঘটনার ৫দিন পর সীমান্তের কয়লা ব্যবসায়ীদের আতংক সেই ছিনতাইকারী আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করেছে।’ সে উপজেলার শ্রীপুর উওর ইউনিয়নের বালিয়াঘাট সীমান্তের বালিয়াঘাট (বাদারগড়) পাড়ার ইছব আলী ওরফে ফুটকার ছেলে।’
এ ব্যাপারে রবিবার সকালে আনোয়ার ও তার অপর তিন সহযোগী সহ ৪ ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।’
রবিবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার বড়দল উওর ইউনিয়নের ব্রাম্মণগাঁও গ্রামে আত্বগোপনে থাকা ছিনতাকারী আনোয়ারকে তার এক নিকটাত্বায়ীরে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।’ পুলিশী অভিযানের সময় আনোয়ার নারী-পুরুষ সহ একাধিক স্বজনদের দিয়ে পুলিশের ওপর হামলার অপচেষ্টা করে কৌশলে পালিয়ে যাবার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।’
থানা পুলিশ ও মামলার সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার বালিয়াঘাট গ্রামের বড়ছড়া শুল্ক ষ্টেশনের কয়লা ব্যবসায়ী মগবুল হোসেন বালিয়াঘাট নতুন বাজার থেকে ব্যবসায়ীক কাজ শেষে ২৬ জুন মঙ্গলবার সন্ধায় বাড়ি ফেরার পথে পার্শ্ববর্তী বালিয়াঘাট (বাদারগড়) পাড়ার চিহ্নিত ছিনতাইকারী আনোয়ারের নেতৃত্বে চার দুবৃক্ত সংঘবদ্ধ হয়ে মগবুলকে সড়কেরও ওপর ধারালো অস্ত্রের মুখে আটকে রেখে বেধরক ভাবে পিটিয়ে আহত করে তার নিকট থাকা ১ লাখ ১২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।’ পরে পথচারী ও এলাকাবাসী ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।’ এ নিয়ে পরদিন বুধবার থানায় লিখিত অভিযোগ করার পর
রবিবার আনোয়ার সহ চার দুবৃক্তের নামে ব্যবসায়ীর বড়ভাই কয়লা ব্যবসায়ী ও উপজেলার শ্রীপুর উওর ইউনিয়নের শ্রমিকলীগের সদস্য সচিব আবুল হোসেন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।’
এদিকে ছিনতাইকারী গ্রুপের আতংক থাকা একাধিক কয়লা ব্যবসায়ী অভিযোগ করেন, শুধুমাত্র আনোয়ারের ওপর হামলা ও ছিনতাইর ঘটনাই শেষ নয়, গত এক দেড় বছরে ছোট বড় ৪০টি ছিনতাইর ঘটনা ঘটিয়েছে এ চক্র।’ ইতিপুর্বে ওইসব ছিনতাইর ঘটনায় কোন কোন ক্ষেত্রে ধর্ষণ মামলার ভয় দেখিয়ে ভোক্তভোগীদের উল্টো হয়রানী করিয়েছে আনোয়ার ও তার লোকজন।’
উপজেলার বালিয়াঘাট বাজারের ব্যবসায়ী বোরহান খাঁ, জজ মিয়া সহ একাধিক ব্যবসায়ী জানান, প্রায় দেড় বছর পুর্বে ভৈরবের এক কাপড় ব্যবসায়ীর কাপড় কেনার কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে প্রায় লাখ টাকার কাপড় ছিনতাই করে আনোয়ার ও তার পরিবারের লোকজন।’ এ ঘটনায় ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী আনোয়ারের বসতবাড়ি গুড়িয়ে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয়ার পর ফের বাড়ি তৈরী করে তার পুরনো অপকর্ম চালিয়ে যেতে থাকে নির্ব্রিগ্নে। ছিনতাইয়ের পাশাপাশী আনোয়ার তার বাড়িতে নারীদের দিয়ে দেহ ব্যবসা ও ইয়াবা সহ নানা মাদক ব্যবসা এবং সেবনকারীদের মিনি হাট তৈরী করে রেখেছে।’ কখনো সড়কে আবার কখনো নারীদের দিয়ে ফাঁদ তৈরী কওে লোকজনকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে ছিনতাইর ঘটনা ঘটিয়েছে আনোয়ার চক্র।’ ইতিপুর্বে একাধিক ছিনতাইয়ের ঘটনা ও লোকজনকে হামলার পর ভোক্তভোগীদের ধর্ষণ মামলার ভয় দেখিয়ে একের পর এক ছিনতাইর ঘটনা ঘটিয়েও ধামাচাঁপা দিতেও সিদ্ধহস্ত হয়ে উঠেছে বেপরোয়া আনোয়ার ও তার পরিবারের লোকজন।’
এ ব্যাপারে তাহিরপুর থানার ওসি শ্রী নন্দন কান্দি ধর বলেন, হামলা ও ছিনতাইর ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ঘটনার মুল হোতা আনোয়ারকে গ্রেফতার করা হয়েছে, তাকে আদালতে সোপর্দ করার পর ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধার ও ইতিপুর্বে একাধিক ছিনতাইর ঘটনার তথ্য জানতে আদালতে পুলিশ তার রিমান্ড’র আবেদন জানাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.