1. bnp786@gmail.com : editor :
  2. sylwebbd@gmail.com : mit :
  3. zia394@yahoo.com : Nurul Alam : Nurul Alam
  4. mrafiquealien@gmail.com : Rafique Ali : Rafique Ali
  5. sharuarprees@gmail.com : Sharuar : Mdg Sharuar
  6. ruponali@yahoo.com : Shohidul Islam : Shohidul Islam
বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জ্বালানি তেলের মূল্য রেকর্ড বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজশাহী মহানগর যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ । আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ ইব্রাহীম এর মৃত‌্যু বা‌র্ষিকী উপল‌ক্ষে দোয়া মাহ‌ফিল অনু‌ষ্ঠি‌ত। জগন্নাথপুরে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। সুনামগঞ্জ জগন্নাথপুরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত। জগন্নাথপুর ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত। আমাদের অর্থে আমাদের পদ্মা সেতু’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন। সি‌লেট-চট্টগ্রাম ফ্রেন্ড‌শীপ ফাউ‌ন্ডেশন এর খাদ‌্য সামগ্রী বিতরণ। ইতালি রোমে তিন দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে গ্রীষ্মকালীন মেলা, প্রস্তুতি সভা ও সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত। লন্ড‌নে নাগরিক সম্বর্ধনায় সিক্ত সাবেক সফল মন্ত্রী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি। জালালাবাদ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদ ইতালীর সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠান।

প্রবৃদ্ধির পেছনে না ছুটে সমস্যা সমাধানে মনোযোগ চাই

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্টঃআজ থেকে নতুন অর্থবছরের যাত্রা শুরু হচ্ছে। ২০২০–২১ অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ৮ দশমিক ২ শতাংশ। অথচ আমরা দেখছি করোনা অর্থনীতিকে শ্লথ করে দিয়েছে। এ অবস্থার মধ্যে অর্থমন্ত্রী যে প্রবৃদ্ধি ধরেছেন, সেটি স্বাভাবিক সময়ে অর্জন করাও কঠিন। তার মানে অর্থনীতিতে করোনার যে ব্যাপক আঁচড় পড়েছে, সেটিকে অগ্রাহ্য করা হয়েছে। নীতি প্রণয়নের ক্ষেত্রে এ ধরনের মনোভাব অর্থনীতির জন্য ক্ষতিকর।

করোনায় আপাতদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে কৃষি খাত ভালো অবস্থায় রয়েছে। কিন্তু আমাদের জিডিপির প্রায় ৫৫ শতাংশই সেবা খাতের অবদান। শিল্পসহ উৎপাদন খাতকে বিবেচনায় নিলে তা প্রায় ৮০ শতাংশের বেশি। এ অবস্থায় সেবা ও উৎপাদন খাতে যদি সমস্যা থাকে তাহলে কৃষির একক ভালো দিয়ে জিডিপির এত প্রবৃদ্ধি সম্ভব হবে না। আমরা জানি কৃষি খাতও চাপে আছে। কৃষকের কাছে কৃষি এখন লাভজনক নেই। তাই নতুন অর্থবছরে সরকারের উচিত উচ্চ প্রবৃদ্ধির পেছনে না ছুটে প্রকৃত সমস্যা সমাধানে মনোযোগ দেওয়া। এ বছরটিতে জিডিপি ঋণাত্মক না হয়ে ইতিবাচক ধারায় থাকলেই আমি অনেক খুশি থাকব।

আমরা দেখছি একটি জনগোষ্ঠী গ্রামে ফিরে যাচ্ছে। কেউ চাকরি হারিয়ে, আবার কেউ প্রবাস থেকে ফিরে এসেছেন। এসব জনগোষ্ঠীর সামনে এক অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ। এমনিতেই আমাদের দেশের মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তের মধ্যে সঞ্চয়ের সক্ষমতা কম। তারপরও যেটুকু সঞ্চয় তা চুষে নিয়েছে করোনা। মানুষের আয় কমে যাওয়ায় ভোগে তার বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। অর্থনীতিকে সচল রাখতে হলে চাহিদার উদ্দীপনা ঠিক রাখতে হবে। আমরা দেখছি উৎপাদন খাতেই করোনার সবচেয়ে বড় ধাক্কা লেগেছে। এ কারণে চাহিদা কমে গেছে। এতে সরকারের রাজস্ব আয়ের প্রবৃদ্ধিও কমে যাবে। আমার মনে হয়, এ অর্থবছরে অর্থসংস্থানই হবে সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। বিশ্বজুড়ে বর্তমানে যে পরিস্থিতি তাতে খুব বেশি বৈদেশিক ঋণ পাওয়া যাবে না।

যেহেতু দৃশ্যতই দেখা যাচ্ছে, সরকারের আয় কমে যাচ্ছে তাই এ অবস্থায় ব্যয়ের অগ্রাধিকার নির্ণয় করাটা সরকারের জন্য আরেক বড় চ্যালেঞ্জ। অর্থমন্ত্রী চলতি অর্থবছরে উচ্চ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের মাধ্যমে অগ্রাধিকারের বিষয়টিকেই চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছেন। করোনার কারণে অর্থনীতিতে যে অনিশ্চয়তা তৈরি করেছে তার শেষ কোথায়, এখনো কেউ জানি না। এ অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত সব খাতের মানুষের পাশে সমভাবে দাঁড়াতে হবে। অথচ আমরা দেখলাম যে প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে সেখানে প্রভাবশালীরাই বেশি সুবিধা পেয়েছে।

মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন, অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Comments are closed.

এই ধরণের আরো খবর

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
২,০০৮,০৬৮
সুস্থ
১,৯৪৯,৫৪০
মৃত্যু
২৯,৩০৯
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১৯৮
সুস্থ
৩৮৬
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© All rights reserved © 2021 notunalonews24.com
Design and developed By Syl Service BD