মে ১১, ২০২১

জগন্নাথপুরে আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবসে উপজেলা শিক্ষা অফিসারের লুকোচুরি, ক্ষুব্ধ সাংবাদিকরা।  

মুহিবুর রেজা টুনু সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবসে শিক্ষা অফিসারের লুকোচুরির কারনে ক্ষোভ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সাংবাদিক ও সুশিল সমাজ।
মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) ১০ টা ৩০ মিনিটে উপজেলা পরিষদের মিলনায়তে আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়েছে। উপজেলা নিবার্হী অফিসার মেহেদি হাসানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার জয়নার আবেদীনের পরিচালনায় এক সভায় সাংবাদিক ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধি কেউ উপস্থিত ছিলেন না বলে জানা গেছে।
জানা যায়, উপজেলা শিক্ষা অফিসার জয়নার আবেদীন তাঁর বলয়ের কিছু লোকদের দাওয়াত দেন। এতে বাদ পড়ে যান অনেকেই। ইতি পূর্বে তিনি নামে মাত্র অনুষ্টান দেখিয়ে সরকারের বরাদ্ধ আত্মসাৎ করেছেন। জয়নার আবেদিন ২০১৫ সালের ১০ মার্চ যোগদান করার পর থেকে বিতর্কিত নানান কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েন। বিভিন্ন সময়ে তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় ঘুষ দুনীর্তির সংবাদ ছাপা হলেও তিনি বড় কর্তাদের ম্যানেজ করে থাকছেন ধরাছোয়ার বাহিরে। সরকারের বিভিন্ন বরাদ্ধে লুটপাট করে গড়ে তুলেছেন কালো টাকার পাহাড়। এছাড়া নাম মাত্র কাজ দেখিয়ে ভাউচার বানিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করে যাচ্ছেন। স্কুলের স্লিপ ও ক্ষুদ্র মেরামতে টাকাও ভাগ বসান উপজেলা শিক্ষা অফিসার জয়নাল আবেদীন। তিনি শিক্ষক বদলি বানিজ্যে কাজে তাঁর বিরুদ্ধে রয়েছে দীর্ঘ দিনের অভিযোগ তাঁর ভয়ে কেউ মুখ খুলছেন না। এ সব ব্যাপারে তদন্ত আসলে বেড়িয়ে আসবে কালো টাকার রহস্য।
এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার জয়নার আবেদিন বলেন, কয়েকজন সাংবাদিককে বলেছি আগামীতে দাওয়াত পাবেন। আমার উপর আনিত অভিযোগ মিথ্যা। উপজেলা নিবার্হী অফিসার মেহেদি হাসান জানান, শিক্ষা অফিস এ বিষয়ে দায়িত্ব পালন করেছে। দাওয়াতের বিষয়ে আমি জানিনা তারপরও বিষয়টি দেখছি।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আতাউর রহমান বলেন, এটা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে দিবসটি পালিত হয়েছে। আমার পরিষদের কোন মিটিং হলে সাংবাদিকদের অব্যশই দাওয়াত দেওয়া হবে।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.