মে ১১, ২০২১

সুনামগঞ্জের ষোলঘরে ছোটভাইয়ের দা’র কূপে বড়ভাই গুরুতর আহত ।

মুহিবুর রেজা টুনু সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জ পৌরসভার ষোলঘর এলাকায় কলেজ পড়ূয়া ছোটভাই কোনও কারণ ছাড়াই আপন বড়ভাইকে দা দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করেছে। দায়ের কোপে বড়ভাইয়ের পেঠে নাড়িভূড়ি বের হয়ে গেছে এবং হাতের বিভিন্ন জায়গাতে কুপিয়েছে। গুরুতর আহতের নাম উৎপল সরকার(৩৬)। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে দ্রুত সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। হামলাকারী উজ্জল সরকার(১৯)কে পুলিশ আটক করেছে।
আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শহরের ষোলঘরস্থ রুহিত ভিলার দ্বিতীয় তলায় তাদের ভাড়া বাসার ফ্লাটে এ ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. শহিদুর রহমানের নেতৃত্বে এস আই প্রদীপ চক্রবর্তী,এস আই শরীফ মিয়াসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে রক্তমাখা দা ও আলামত সংগ্রহ করে হামলাকারী উজ্জল সরকারকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,গুরুতর আহত উৎপল সরকার দীর্ঘদিন মৌলভীবাজারের একটি ঔষধ কোম্পানীতে চাকুরী করেছেন এবং এখন সুনামগঞ্জ শহরে একটি ফার্মেসী করার পরিকল্পনা ছিল। তিনি পাশ্ববর্তী নেত্রকোণার জেলার খালিয়াজুরী থানার জুগিমারা গ্রামের উমাকান্ত সরকারের ছেলে এবং তারা মোট আপন ছয়ভাই। উজ্জল সরকার সে সবার ছোট এবং খালিয়াজুরী কৃষ্ণপুর কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। করোনা চলমান থাকার কারণে স্বপরিবারে ছয়ভাই ঐ রুহিত ভিলার দ্বিতীয় তলার একি ফ্লাটে গত সাতমাস ধরে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিলেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত গুরুতর আহত উৎপল সরকার সিলেটের পথে রয়েছেন তবে প্রচুর রক্তখনন হচ্ছে বলে পরিবার সূত্রে জানা যায়।
এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি মো. শহিদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,কোন কারণ ছাড়া একভাই আরেক ভাইকে এভাবে দা দিয়ে কুপাতে পারে না নিশ্চয়ই পারিবারিক কোন কলহ থাকতে পারে তবে তদন্ত সাপেক্ষে আসল ঘটনা উৎঘাটন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.