1. bnp786@gmail.com : editor :
  2. sylwebbd@gmail.com : mit :
  3. nurulalamneti@gmail.com : Nurul Alam : Nurul Alam
  4. mrafiquealien@gmail.com : Rafique Ali : Rafique Ali
  5. sharuarprees@gmail.com : Sharuar : Mdg Sharuar
  6. Mahareza2015@gmail.com : Muhibur reza Tunu : Muhibur reza Tunu
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আতিকুর রহমান টিটুকে গ্রেফতারে সিলেট জেলা যুবদলের নিন্দা সিলেটে বাসদের উদ্যোগে করোনা টিকার ফ্রি নিবন্ধন কার্যক্রমের উদ্বোধন তুরন মিয়ার বোনের মৃত্যুতে যুক্তরাজ্য বিএনপির শোক প্রকাশ। করোনায় আক্রান্ত সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত   জঃপুর উঃ আন্তর্জাতিক গীতিকবি সাংস্কৃতিক পরিষদ এর ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠিত। জগন্নাথপুর উপজেলা,পৌর ও কলেজ ছাত্রদলের ঈদ পূর্ণমিলনী ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। ৪৮ ঘন্টার ভিতরে কোরবানীর বর্জ পরিস্কারের ঘোষনা,কথা রাখলেন মেয়র আরিফ সিলেটে করোনায় মৃত্যুের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬০৬ জনে ছাতকে নামাজি শিশু-কিশোরদের বাই সাইকেল উপহার দিলো পাইগাঁও যুব সমাজ যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সাঃ সম্পাদক আবুল হোসেন এর পিতার মৃত্যুতে আবুল কালাম আজাদ এর শোক প্রকাশ।

সিলেটের মা ও শিশু হাসপাতালে হঠাৎ অক্সিজেন সঙ্কট, আতঙ্ক, রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৬ জুলাই, ২০২১

সিলেট প্রতিনিধি:: সিলেটের  মা ও শিশু হাসপাতালে গতকাল গভীর রাতে হঠাৎ অক্সিজেন সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এসময় হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগী ও স্বজনদের আতঙ্ক তৈরি হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অক্সিজেন সাপোর্ট সংবলিত ২০টি এম্বুলেন্স এনে হাসপাতাল গ্রাউন্ডে মজুত রাখে। আতঙ্কে অনেক রোগীকে রাতেই অন্য হাসপাতালে সরিয়ে নেন স্বজনরা। অক্সিজেন সঙ্কট মৌলভীবাজারের একজন রোগী মারা যান বলে দাবি করেন তার স্বজনরা। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যানজটের কারণে অক্সিজেন সিলিন্ডারের গাড়ি হাসপাতালে পৌঁছতে দেরি হওয়ায় এই সঙ্কট দেখা দেয়। আজ ভোরে অক্সিজেন সিলিন্ডার এসে পৌঁছালে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, সিলেটের কমিউনিটি বেইজড মা ও শিশু হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।

বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে হঠাৎ করে হাসপাতালটিতে অক্সিজেনের মজুত ফুরিয়ে যায়। তখন হাসপাতালের আইসিইউ ও কেবিনে থাকা রোগীদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়। রোগীর স্বজনরা অন্য হাসপাতালে যোগাযোগ শুরু করেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে রাত ৩টার দিকে ২০টির মতোর অক্সিজেন সাপোর্ট সংবলিত এম্বুলেন্স নিয়ে আসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তারপরও রোগী ও স্বজনদের মধ্যে আতঙ্ক কাটেনি। আইসিইউতে থাকা ১১ জন রোগীকে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করেন স্বজনরা।
মা ও শিশু হাসপাতালের পরিচালক ডা. তারেক আজাদ বলেন, রাত ২টার দিকে হাসপাতালে অক্সিজেন সঙ্কট দেখা দেয়। এসময় তারা ম্যানেজ করার চেষ্টা করেন। ভোর ৪টা দিকে অক্সিজেন সিলিন্ডার এসে পৌঁছে। আজ সকাল ৯টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক। তবে অক্সিজেন সঙ্কটে কেউ মারা যাননি বলে দাবি করেন তিনি।

Comments are closed.

এই ধরণের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 notunalonews24.com
Design and developed By Md.Rafique Ali