1. bnp786@gmail.com : editor :
  2. sylwebbd@gmail.com : mit :
  3. zia394@yahoo.com : Nurul Alam : Nurul Alam
  4. mrafiquealien@gmail.com : Rafique Ali : Rafique Ali
  5. sharuarprees@gmail.com : Sharuar : Mdg Sharuar
  6. cardgallary17@gmail.com : Shohidul Islam : Shohidul Islam
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৯:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
উইমেন্স মেডিকেলে রোগীকে সজাগ রেখে মস্তিষ্কের জটিল টিউমার অপারেশন। রোমে ৩রা অক্টোবর গণ মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ সফল করতে ইতালি যুবদলের মতবিনিময়। পোয়েটসপিডিয়া-বাংলা রাইটার্স ক্লাবের কমিটি গঠন। নৌকাডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৬৪ জনের লাশ উদ্ধার। জয়তুন ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের উদ্যোগে দিনব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে দেশে আসছেন আব্দুল মতিন লাকি। স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা ফয়ছলের মৃত্যুতে মিরপুর ইউনিয়ন বিএনপির শোক প্রকাশ। জগন্নাথপুর বিএনপি নেতা জামাল হোসেনের মৃত্যুতে কয়ছর এম আহমেদ এর শোক প্রকাশ। সিলেটের কৃতি সন্তান ব্যারিস্টার মোস্তাকিম রাজা চৌধুরী ইংল্যান্ডে সংবর্ধিত । ইতালির জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারনায় সেন্তোসেল্লেতে‌ এমপি ও সিনেট পদপ্রার্থীরা, প্রবাসীদের সাথে মতবিনিময়।

জগন্নাথপুরে আ’লীগ নেতার বেফাঁস মন্তব্য : মুনিবের অনুমতি ছাড়া নামাজে ও যাওয়া যাবে না !!

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : : মনিবের অনুমিত ছাড়া নামাজেও যাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের মিডল্যান্ড শাখার সহ-সভাপতি আকমল খাঁন।

এমন অভিযোগ করেছেন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের ইসহাকপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের এগারো শিক্ষক।

তাঁদের লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ৪ এপ্রিল বিদ্যালয়ের মধ্যাহৃ বিরতীর সময় স্কুলে যান নবগঠিত বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা আকমল খাঁন।

তিনি সেখানে গেলে শিক্ষক মিলনায়তনে উপস্থিত শিক্ষকদের সাথে আলোচনার মধ্যে সম্প্রতি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রাসেল মিয়া বিয়েতে কে কে গেলেন। তা দেখতে আসছেন। যদিও তিনি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুজ জাহের-কে ব্যাংকে বলেছেন বিয়েতে ২/৩ শিক্ষককে নিয়ে যাবেন। তার অনুমতি সাপেক্ষে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিয়েতে যান। এরপর সভাপতি কেন দেখতে আসছেন ‘কে কে গেলেন’ সেটা জানতে চান শিক্ষকগন।

এছাড়া তাদের অভিযোগে আরেকটি বিষয় উল্লেখ করেন শিক্ষকবৃন্দ। বিষয়টি হলো বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে কোনো বিবাহ বা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা যাবে না কেন প্রশ্ন রেখেছেন এবং তাদের ভাষ্য বিদ্যালয় একটি সামাজিক প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের ক্ষতি হয় না এমন কাজে অংশগ্রহণ করে থাকেন শিক্ষকবৃন্দ। তবে এনিয়ে নতুন নিষেধ কেন? সেটার ব্যাখা চাহিলেন শিক্ষকবৃন্দ।

এসব বিষয় নিয়ে কথা বলতে বলতে সভাপতি আকমল খান হাদিসের উদাহরণ দিয়ে বলেন, ” মনিবের অনুমিত ছাড়া নামাজেও যাওয়া যাবেনা।”

অথচ প্রতি মুসলিম জানেন নামাজ পড়তে হলে একজন মুসলিম হওয়া প্রধান সর্ত, দ্বিতীয়ত নামাজ তার উপর ফরজ যিনি সাবালক। এখানে তো সবাইও সাবালক। সাবালকদের নামাজ পড়তে আর কারো অনুমতি লাগে না। কেননা একজন মুসলিম সাবালক হওয়ার আগেই আল্লাহ তাকে সাবালক হওয়ার পরপরই অনুমিত দিয়েছন।

এখানে ‘মনিব’ বলতে সভাপতি বুঝিয়েছে তিনিই প্রতিষ্ঠানে সভাপতি তাই তিনিই মনিব। এমনটাই নাম প্রকাশের অনিচ্ছা সর্তে বেশ কয়েকজন শিক্ষক জানিয়েছেন। যা মুটোও কার্ম্য নয়।

হাদিসটি কোন হাদিসের কতো নং হাদিস ও কেনো শিক্ষকদের হাদিসের কথা শুনানো হলো সেটার ব্যাখা কি জানতে চান ওই এগারো শিক্ষক।

অভিযোগকারী শিক্ষকরা হলেন- সহকারী সিনিয়র শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র পাল, জালাল উদ্দিন, সহকারী শিক্ষক তাজ উদ্দিন, ফিরোজা বেগম, তাজভিনা খাতুন, আশিকুর রহমান, নুরুল হক, মুহাম্মদ জহিরুল হক, মো. রাসেল মিয়া, অফিস সহকারী আবু তাহের।

এনিয়ে কথা বলতে চাহিলে সভাপতি ও প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

ঘটনার পর থেকে সর্বত্র সমালোচনার ঝড় বইছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরণের আরো খবর

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
২,০২৮,১১৪
সুস্থ
১,৯৬৭,৩৬৯
মৃত্যু
২৯,৩৭৪
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
৫৪৯
সুস্থ
২৯৩
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© All rights reserved © 2021 notunalonews24.com
Design and developed By Syl Service BD