বুধ. সেপ্টে ২৩, ২০২০

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ১৩ বছরের শিশু ধর্ষনের শিকার,ধর্ষনকারী আটক

এম রেজা টুনু সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জে এক ১৩ বছরের শিশু ধর্ষনের শিকার হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের ডুংরিয়া শিবপুর গ্রামে। এ ঘটনায় পুলিশ রাত ১০টায় ধর্ষণকারী মোঃ সাগর মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।
স্থানীয় ও পুলিশ রাত ৮টায় ডুংরিয়া শিবপুর গ্রামের ঐ শিশুটি প্রস্রাব করার জন্য বাড়ির পেছনে বের হলে একই গ্রামের লম্পট মোঃ সাগর মিয়া(২৪) শিশুটির মুখে ওড়না দিয়ে চেপে ধরে বাড়ির পাশে একটি গাছের বাগানে নিয়ে ধর্ষন করে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায়। ধর্ষনকারী দুই সন্তানের জনক মোঃ সাগর মিয়া শিবপুর(ফার্মবাড়ি) গ্রামের মোঃ আরব আলীর ছেলে। বাড়ির লোকজন অনেক খোজাঁখুজি করে না পেয়ে পার্শ্ববর্তী ঐ বাগানে গিয়ে শিশুটিকে রক্তাক্ত ও সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেলে পুলিশ তাকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করছেন বলে জানা যায় ।
এ ব্যাপারে ধর্ষনকারীর আপন বড়ভাই মোঃ আরশ আলী বলেন তার ছোটভাই সাগর মিয়াকে পুলিশ আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন এবং শিশুটি (মেয়েটি) তার আপন চাচাতো বোন । তার আপন ছোট ভাই সাগর মিয়া দুই সন্তানের জনক সে কোন ধর্ষনের ঘটনার সাথে জড়িত নয় বলেও জানান। আমাদরকে ফাসাঁনোর জন্যই এমন ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন।
এ ব্যাপারে জয়কলস ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য ও শিবপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ জসিম উদ্দিন ধর্ষনের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,দেশে প্রতিনিয়ত যে শিশু(মেয়ে) নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে তা খুবই লজ্জাজনক। ধর্ষনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রয়োগ করা না হলে দিন দিন ধর্ষনের ঘটনা বেড়েই চলবে।
এ ব্যাপারে ধর্ষিতার মা খালেদা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান.আমি অভাবের তাড়নায় অন্যের বাড়িতে কাজ করার সুবাদে এবং আমার স্বামী অসুস্থ থাকায় মেয়ে প্রস্রাব করতে বের হলে সুযোগ বুঝে সাগর মিয়া আমার মেয়ের মুখে ওড়না দিয়ে চেপে ধরে বাড়ির পাশে একটি গাছের বাগানে নিয়ে তাকে ধর্ষন করে। আমি তার উপযুক্ত বিচার চাই।
এ ব্যাপারে দক্ষিন সুনামগঞ্জ থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মোঃ আলা উদ্দিন জানান মেয়ের পরিবার থেকে ত্রিফল নাইনে ফোন করে ধর্ষনের ঘটনার কথা জানালে আমরা পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত সাগর মিয়াকে আটক করে থানায় নিয়ে আাস হয়। এখন ঘটনার সত্যতা প্রমানের জন্য মেয়েটিকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারুণ অর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান এই ঘটনায় পুলিশ ধর্ষনকারীকে আটক করেছে। তবে মেডিকেল রির্পোটের পর বিস্তারিত ঘটনা জানা যাবে।

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.