মে ৬, ২০২১

জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের মাস্ক বিতরণ স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রত্যেকেই নাগরিকের ব্যবহার করা উচিত —- অধ্যাপক জাকির হোসেন

সৈয়দ মুহিবুর রহমান মিছলু:সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন বলেছেন, বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারি পুরো বিশ্বকে স্তব্ধ করে দিয়েছে। চাকরি হারিয়ে বেকার হয়েছে কোটি কোটি মানুষ। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ করোনাকাল খুব সতর্কতার সাথে অতিক্রম করছে। বিশ্বের যেকোন দেশের তুলনায় মানুষের জানমালের ক্ষতি কম হয়েছে। অর্থনৈতিকভাবেও আমরা সমৃদ্ধ হয়েছি আরো বেশি। তিনি বলেন, সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রত্যেক নাগরিকের ব্যবহার করা উচিত। তিনি সাধারণ জনগণকে উদ্বুদ্ধ এবং মাস্ক বিতরণ করায় বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সকল সদস্যদের ধন্যবাদ জানান।
রোববার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে নগরীর ধোপাদীঘিরপাড়ে সিলেট জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. ফেরদৌস খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, ফাউন্ডেশনের সহ সভাপতি সামছুল আলম, দৈনিক সিলেটের ডাক এর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ ও মিসেস হেলেন আহমদ, সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চিত্রশিল্পী ভানুলাল দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক কবিরুল ইসলাম কবির, সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিধু ভূষণ চক্রবর্তী, শিশু ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা মাধুরী দাস, সহ প্রচার সম্পাদক লিটন আহমদ।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুছ সালাম, জাকির চৌধুরী, সংগঠনের নির্বাহী সদস্য রোকশানা পারভীন, তুহিন আহমদ চৌধুরী, আহমদ আলী খান প্রমুখ।বুদ্ধিজীবী দিবসে সিলেট
জেলা যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পন করেছে সিলেট জেলা যুবলীগ। সোমবার সকালে সিলেটের চৌহাট্রাস্থ শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতিসৌধে জেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করা হয়।

জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ ভিপি ও জেলা সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম আহমদের নেতৃত্বে জেলা যুবলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পুস্ফস্তবক অর্পন শেষে জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বলেন, পাকিস্তানী শাসকগোষ্টী দেশকে অভিভাবক শুণ্য এবং বাঙ্গালীত্বের স্বাদ মুছে দিতে দেশের প্রতিথযশা বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে। এরই মধ্য দিয়ে দেশকে মেধাশূণ্য করার প্রচেষ্টা চালায় তারা। সেই দোসরদের প্রেতাত্মারা এখনও সক্রিয়। এই প্রেতাত্মারাই ১৯৭৫ সালে ১৫ই আগষ্ট জাতির পিতাকে স্বপরিবারে হত্যা করে দেশকে নেতৃত্বশূণ্য করার প্রচেষ্টা চালায়। তিনি বলেন, দেশে একটি মুজিব সৈনিক বেঁচে থাকতে পাকিস্তানী প্রেতাত্বাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হবেনা, হতে দেওয়া হবেনা

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.