নভেম্বর ২৬, ২০২০

জগন্নাথপুরে বন্যার পানি কমলেও দুর্ভোগ শেষ নেই

১ min read

জগন্নাথ পুর মুহিবুর রেজা টুনু::জগন্নাথপুরে বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে। তবে দুর্ভোগ কমছে না। উজান থেকে নেমে আসা ঢল ও অব্যাহত ভারি বর্ষণে উপজেলার আশারকান্দি, পাইলগাঁও, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার একাংশের প্রায় ৫০ টি গ্রামের মানুষ গত ৫/৬ দিন ধরে বন্যা কবলিত অবস্থায় রয়েছেন। বন্যার কারণে উপজেলার ৩২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। ১৫টি ফিসারির মাছ ভেসে যাওয়ায় মাছ চাষীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। সরকারিভাবে এখনো কোন ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হয়নি। বৃহস্পতিবার থেকে পানি কমতে শুরু করেছে। শুক্রবারও পানি কমেছে। উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বকুল চন্দ্র দাশ জানান, বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে। তবে দুর্ভোগে পড়েছেন বন্যা কবলিত ২০/২৫টি গ্রামের মানুষ। স্যানিটেশন, যাতায়াত ব্যবস্থাসহ নানা দুর্ভোগে পড়েছেন পানিবন্দি মানুষ। এখন ইউনিয়নের প্রধান সড়ক ভবেরবাজার-কাঠালখাইড় সড়কটি পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় সড়ক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। জগন্নাথপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ওয়াহিদুর আবরার জানান, বন্যার পানিতে উপজেলার ৪০ হেক্টর ফিসারীর মাছ ভেসে গেছে। এতে প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন, ‘জগন্নাথপুর উপজেলার মানুষ বন্যা কবলিত অবস্থায় আছেন। সরকারিভাবে তাদের ত্রাণ সহায়তা করা দরকার।’ জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ বলেন, ‘আমরা বন্যার সার্বিক খোঁজ খবর রাখছি। গত দুইদিন ধরে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় পানি ধীরে ধীরে নেমে যাচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.