বৃহঃ. সেপ্টে ২৪, ২০২০

পবা উপজেলার যুবলীগ সভাপতি এমদাদ আলীর নেতৃত্বে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড

১ min read

সরকার অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের পথ রুদ্ধ করার হীন উদ্দেশ্যেই সারাদেশের ন্যায় রাজশাহীতে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েনের পরও পুলিশের অন্যায় গ্রেফতার অভিযান বন্ধ হচ্ছে না। ২০দলীয় জোট মনোনীত ,জাতীয় ঐক্যযফ্রন্টের প্রার্থী কিংবা স্বতন্ত্র প্রার্থী কেউই নির্বাচনী তৎপরতা চালাতে পারছেন না। পুলিশ এবং আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা ঐক্যবদ্ধভাবে বিরোধী দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচনী কর্মকান্ডে বাধা দিচ্ছে। দেশবাসী আশা করেছিল সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েনের পরে নির্বাচনের পরিবেশ সুষ্ঠু হবে। কিন্তু আজ সোমবার তাদের মোতায়েনের পরও পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। বরং পরিস্থিতির আরো অবনতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এ অবস্থা বিরাজ করলে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক হওয়ার কোনো সম্ভাবনাই নেই। আগামী ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনও ২০১৪ সালের নির্বাচনের মতই একতরফা ব্যালট ডাকাতির প্রহসনের নির্বাচনে পরিণত হওয়ার আশঙ্কাই প্রবল হচ্ছে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীর অভিযোগ সমূহঃ
পবা উপজেলার যুবলীগ সভাপতি এমদাদ আলীর নেতৃত্বে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড নিম্নরুপ:

১। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার প্যানেল মেয়র নাজিমুদ্দিন নবির বাড়িতে আনুমানিক রাত ১২.০০ ঘটিকায় তল্লাশির নামে হয়রানি করেছে পুলিশ।
২। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আজহার আলীকে আনুমানিক রাত ২.০০ ঘটিকায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

৩। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার শ্রীপুর গ্রামে জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক আজাদ আলীর বাড়িতে আনুমানিক রাত ১.০০ ঘটিকায় ককটেল বিস্ফোরণ এবং নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করেছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
৪। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দিয়েছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
৫। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড বারইপাড়া গ্রামের বিএনপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দিয়েছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
৬। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার দুয়ারী গ্রামের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।

হরিয়ান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মফিজুল ইসলাম বাচ্চু রাজশাহীবিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন মুন, হরিয়ান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ইয়াসিন, সাধারণ সম্পাদক জেবর, আওময়ালীগনেতা নূর হোসেন, ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক, বাবু (রনহাট), ওবাই, আমিন, সাইফুল, রফিকুল, তুজিবার, সাঈদ (ব্যবসায়ী) নেতৃত্বে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড নি¤œরূপ:
৭। ২৪ ডিসেম্বর আনুমানিক সন্ধ্যা ৭.০০ ঘটিকায় পবা উপজেলার হরিয়ান ইউনিয়নের জাগিরপাড়া গ্রামে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইয়াসিন ও তার ২ ছেলে যথাক্রমে ফয়সাল, হাবিব ও যুবলীগ নেতা আরিফের নেতৃত্বে জামাল, হিমেল, ইব্রাহিম, বাবু (রনহাট), শহিদ সহ নৌকা প্রতীকের সমর্থক বেশকিছু সন্ত্রাসীরা ধানের শীষ প্রতীকের প্রচার গাড়ি ভাংচুর করে এবং প্রচারণারত কর্মীকে মারধর করে আহত করে।

৮। ২৪ ডিসেম্বর আনুমানিক রাত ১০.০০ ঘটিকায় পবা উপজেলার হরিয়ান ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আশরাফের মোড়ের ধানের শীষের নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দিয়েছে হরিয়ান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইয়াসিন, সাধারণ সম্পাদক জেবর আলী, পবা আওয়ামীলীগ নেতা নূর হোসেন, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক, বাবু (রনহাট), ওবাই, সোহরাব, সাজ্জাদ, রেজাউল সহ ১০-১৫ জন নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
৯। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার হরিয়ান ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড তেতুলতলা মোড়ের ধানের শীষের নির্বাচনী কার্যালয় আনুমানিক দুপুর ১২.০০ ঘটিকায় হরিয়ান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মফিজুল ইসলাম বাচ্চু রাজশাহীবিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন মুন, হরিয়ান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ইয়াসিন, সাধারণ সম্পাদক জেবর, আওময়ালীগনেতা নূর হোসেন, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক, বাবু (রনহাট), ওবাই, আমিন, সাইফুল, রফিকুল, তুজিবার, সাঈদ (ব্যবসায়ী) সহ ১০-১৫ জন নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
১০। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার হরিয়ান ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড উখন্ডি গ্রামের ধানের শীষের নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করেছে চেয়ারম্যান মফিজুল ইসলাম বাচ্চু, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক, বাবু (রনহাট), ওমর, মিলন, বাবু (পাট) সহ ১০-১৫ জন নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
১১। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার দামকুড়া হাটের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেছে এবং ইউনিয়নের প্রত্যেকটি ওয়ার্ডের পোষ্টার, ফেস্টুন কেটে ফেলেছে ও নেতাকর্মীদের বাসায় বাসায় তল্লাশির নামে হুমকি এবং নির্বাচনী প্রচারণায় পুলিশ পরিচয়ে বাধা দিচ্ছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।
১২। ২৪ ডিসেম্বর পবা উপজেলার ধানের শীষ প্রতীকের সদস্য সচিব সেলিম রেজা বাচ্চু, যুগ্ম আহ্বায়ক তাইজুল ইসলাম সহ ধানের শীষ প্রতীকের নেতাকর্মীদের বাসায় বাসায় তল্লাশির নামে হুমকি এবং নির্বাচনী প্রচারণায় পুলিশ পরিচয়ে বাধা দিচ্ছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © notunalonews24.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.